The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

প্রতিদিন শরীর থেকে ক্যালরি ঝরাবেন যেভাবে

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ অতিরিক্ত ক্যালরি অনেকেরই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাড়ায়। সেক্ষেত্রে প্রতিদিন শরীর থেকে ক্যালরি ঝরানো প্রয়োজন হয়ে পড়ে। কিভাবে আপনি এই অতিরিক্ত ক্যালরি ঝরাবেন তা জেনে নিন।

Shedding calories

শরীর নিয়ে মাঝে মধ্যেই আমাদের খুব দুশ্চিন্তায় থাকতে হয়। বিশেষ করে যাদের মেদ সমস্যা রয়েছে। তাদের শরীরকে স্বাভাবিক রাখতে ক্যালরি কমানো দরকার হয়ে পড়ে। কারণ কম-বেশি যায়ই খান না কেনো ওজন বেড়ে যায় প্রতিনিয়ত। ওজন বাড়লে শরীরের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন অতিরিক্ত ওজনের কারণে ডায়াবেটিসের মতো কঠিন ব্যধি আপনাকে আক্রমণ করে বসতে পারে। তখন ওজন কমানো জরুরি হয়ে পড়ে। কিন্তু সময়ওতো নেই জিমে যাওয়ার। কারণ আপনাকে থাকতে হয় কর্ম ব্যস্ততার মধ্যে। আর ছুটির দিনে ইচ্ছে থাকলেও কোথাও নড়তে আপনার একেবারেই ইচ্ছে হয় না। অথচ ফিট এবং সুস্থ থাকতে হলে শরীরের বাড়তি ওজন আপনাকে ঝরিয়ে ফেলতেই হবে। কিন্তু ভাবছেন কিভাবে? তাহলে জেনে নিন কিছু নিয়ম-কানুন। এই নিয়ম-কানুন পালন করলে প্রতিদিন অন্তত ৫০০ ক্যালরি পর্যন্ত ঝরিয়ে ফেলতে পারবেন অনায়াসে। কিভাবে এখন সেটিই জানুন:

Shedding calories-2

ব্রেকফাস্ট লাঞ্চ কিংবা ডিনারে ফ্রুট সালাদ খান

যদি আমরা ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ কিংবা ডিনারের প্রতিদিনের খাবারের মেন্যু পাল্টে কয়েক রকমের ফল মিলিয়ে তা দিয়ে সালাদ বানিয়ে খেতে পারি তাহলে দেখবেন আপনার শরীর হতে ৫০০ ক্যালরি ঝরে যাবে, অথচ আপনি বুঝতেই পারবেন না।

সকালের নাস্তা ও ডিম

সকারের নাস্তাঃয় আমরা প্রায় সকলেই ডিম খেতে পছন্দ করি। বলতে গেলে আমাদের সকালের নাস্তাই শুরু হয় ডিম দিয়ে। তাই সকালের নাস্তায় প্রতিদিন যারা ২টি ডিম খেয়ে থাকেন, তারা সারাদিনে অন্তত ৪০০ ক্যালরি কম খাবার খেয়ে থাকেন। এতে করেও ঝরে যায় বেশ কিছু ওজন।

Shedding calories-3

কোমল পানীয় খাবেন না

কোমল পানীয় যেমন কোক বা ফলের জুস আমাদের ওজন অনেক বেশিই বাড়িয়ে দিতে পারে। এগুলো আমাদের শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এই কোমল পানীয় খাওয়ার অভ্যাসটি আপনি চাইলে খুব সহজেই বদলাতে পারেন। এর বিকল্প হিসেবে খেতে পারেন পানীয় জাতীয় কোন ফল অথবা সবজি খেয়ে। যেমন কোমল পানীয়র বদলে খেতে পারেন শসা, লেবুর সরবত, স্ট্রবেরি, ডাবের পানি ইত্যাদি এ জাতীয় কিছু জিনিস। কারণ এগুলো একদমই ক্যালরিমুক্ত খাবার। এগুলো সহজেই খেতে পারেন আপনি।

প্রতিদিন ব্যায়াম করুন

জিমে গিয়ে ব্যায়াম করার সময় আপনার নাও থাকতে পারে। তাই প্রতিদিন আপনি বাসাতেই একটু সময় বের করে নিন। প্রতিদিন অন্তত আধাঘণ্টা ব্যায়াম করুন। এতে করে আপনার ৫০০ ক্যালরি ঝরে যাবে। তাই প্রতিদিন আধাঘণ্টা ব্যায়াম করুন ফিট থাকার জন্য।

টিভি দেখার সময় খাবার থেকে বিরত থাকুন

আমরা অনেকেই খাওয়ার নিয়ে টিভির সামনে বসি। কিন্তু এই বাজে অভ্যাসটি আপনার ক্যালরি কমাতে তো সহায়তা করবেই না বরং উল্টা আরও প্রায় ৩০০ ক্যালরি বাড়াতে পারে। তাই খাওয়ার সময় টিভি না দেখে ডাইনিং টেবিলে বসে খাওয়ার অভ্যাস করুন।

অন্য রকম কিছু কাজ করুন

কিছু অন্য রকম কাজ আপনি করতে পারেন। যেমন দড়ি লাফ করতে পারেন ১০০ বার। আবার একটি জায়গায় দাড়িয়েই দৌড়াতে পারেন। যেমন জিমের মেসিনে দৌড়ানো হয়ে থাকে তেমনভাবে। আবার লাফানোর মতো কাজও করতে পারেন। এই কাজগুলো করলে প্রতি মিনিটে আপনি ১০ ক্যালরি ঝেড়ে ফেলতে পারবেন অনায়াসে। তবে খেয়াল রাখবেন আবার আনতাবড়ি লাফাতে গিয়ে ঠ্যাং ভেঙ্গে বসবেন না যেনো!

এভাবে আপনি প্রতিদিন কিছু নিয়মতান্ত্রিক কাজ করে ক্যালরি ঝরিয়ে ফেলতে পারেন। এতে করে আপনার ওজন কম থাকবে এবং আপনি সুস্থ্য-সুন্দর জীবন যাপন করতে পারবেন। কারণ কথায় রয়েছে- স্বাস্থ্যই সকল সুখের মুল।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...