প্রেমে ব্যর্থ এক ডাকপিয়নের জেল-জরিমানা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রেমে ব্যর্থ হয়ে মানুষ কত কিই না করে বসেন। এমনই এক কাণ্ড করে বসেছেন এক ডাকপিয়ন। প্রেমে ব্যর্থ হওয়ার পর নিজের ঝুলির ৩শ’ চিঠি ও পার্সেল ডাস্টবিনে ছুড়ে ফেলেন। শেষ পর্যন্ত এজন্য জেল-জরিমানাও গুণতে হয়েছে তাকে।

love & gel-fine

প্রেমে ব্যর্থ হওয়ার পর নিজের ঝুলিটাকেই পাথরের মতো ভারি মনে হচ্ছিল ডাকপিয়ন সন্দীপ সিংয়ের। ব্রিটিশ এই ডাকপিয়ন তাই প্রায় ৩শ’ চিঠি ও পার্সেল ডাস্টবিনে ছুড়ে ফেলেন। এ ঘটনায় জন্য তাকে অবশ্য জেল-জরিমানা গুণতে হয়েছে।

নটিংহাম শহরের ডাকপিয়ন সন্দীপ সিং বেচারীর আর কী দোষ বলুন! প্রেমিকার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়ায় ২৭ বছরের এ যুবকের মন একেবারে ভেঙে যায়। এজন্য গত কিছুদিন ধরে চিঠির ব্যাগটাকে তার কাছে পাথরের মতোই ভারি মনে হচ্ছিল। আর তাই তিনি বিলি করার বদলে কিছু চিঠি ফেলে দিতে শুরু করেন। তিনি ভেবেছিলেন, মোবাইলের যুগে এসব চিঠির কীইবা আর গুরুত্ব বহন করে এমন তাচ্ছিল্ল ভাব ছিল ওই ডাকপিয়নের মধ্যে। অথচ এগুলোর মধ্যে চিঠি ছাড়াও ছিল টেলিফোন বিল, ব্যাংক স্টেটমেন্টস ও ক্রেডিট কার্ড বিলের মতো গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট।

তিন সপ্তাহ ধরে তিনি অন্তত ২২৯টি চিঠি ফেলে দিয়েছিলেন ডাস্টবিনে। আরও ৫০টি চিঠি রেখে দিয়েছিলেন নিজের কারবুট এমনকি বিছানার তলায় পর্যন্ত। পরে ডাস্টবিন পরিষ্কার করতে এসে ওইসব চিঠি উদ্ধার করে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা।

এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর সম্প্রতি চিঠি বিনষ্ট ও চিঠি বিলিতে বিলম্বের অভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। শাস্তিস্বরূপ তার ৮ দিন ৮ ঘণ্টা জেল ও সেইসঙ্গে তাকে আরও ২৩শ’ ইউরো জরিমানাও করা হয়েছে। এদিকে এমন কাণ্ডের খবরে অনেকেই আশ্চর্য হয়ে পড়েন। আদালত প্রাঙ্গনে অনেকেই ভিড় জমান তাকে এক নজর দেখার জন্য। অনেকেই বলেন, সত্যিই প্রেমিক বটে!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...