‘ভালোবাসি না’ এমন কথা স্ত্রীকে বলায় স্বামীর জরিমানা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ‘ভালোবাসি না’ এমন কথা স্ত্রীকে বলায় এক স্বামীকে জরিমানা গুণতে হয়েছে। এই ঘটনাটি ঘটেছে তুরস্কে। স্বামীর এধরনের মন্তব্যকে ‘আবেগগত সহিংসতা’ বলে মন্তব্য করেছে আদালত।

husband is fine And Love

কারো কাছ থেকে জোর করে ভালবাসা আদায় করা যায় না সেটি আমরা জানি। আবার মুখে ভালবাসি বলে যদি কেও কাওকে ভাল না বাসে তাহলে সেটিও কারও কিছুই করার থাকে না। কিন্তু এবার এমন ধরনের এক ঘটনায় এক স্বামীর জরিমানা গুণতে হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে তুরস্কে। সেখানকার এক স্বামী তার স্ত্রীকে বলেছে আমি তোমাকে ভালোবাসি না। আর তাই তাকে সর্বোচ্চ আদালত জরিমানা করেছে। আদালত স্বামীর এধরনের মন্তব্যকে ‘আবেগগত সহিংসতা’ বলে মন্তব্য করেছে।

এই দম্পতির মধ্যে বিবাহ-বিচ্ছেদ হওয়ার আগে দু’জনেই পরস্পরের কাছ হতে ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন। যা শেষ পর্যন্ত আদালত পর্যন্ত গড়ায়। শুনানি শেষে তুরস্কের নিম্নতম আদালত বলেছে, ‘তারা দু’জনে একই রকমের খারাপ।’

পরে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তার আদেশে বলেছে, ‘স্বামী যে তার স্ত্রীকে ‘ভালোবাসেন না’ বলে মন্তব্য করেছেন তাতে তিনি তার স্ত্রীর সঙ্গে আবেগের দিক হতে সহিংস আচরণ করেছেন।’ এজন্যে আদালত স্ত্রীকে ক্ষতিপূরণ দিতে ওই স্বামীকে আদেশ দিয়েছেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, স্ত্রী বলেছেন, তার স্বামীর এধরনের মন্তব্যের কারণে তিনি মানসিকভাবে পুরোপুরিভাবে ভেঙে পড়েছিলেন। জবাবে স্বামী বলেছেন, স্ত্রী তাকে অত্যন্ত খারাপ ভাষায় গালাগাল করতেন, সে কারণেই তিনি এই মন্তব্য করেছিলেন।

উল্লেখ্য, নারীর প্রতি সব রকমের সহিংসতা বন্ধে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে তুরস্ক সরকার। তবে আবেগের দিক হতে বা মানসিকভাবে কাওকে নির্যাতন করা হলে কাগজে কলমে সেটা আদালতে প্রমাণ করা অনেক সময় কঠিন হয়ে পড়ে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...