ইন্টারনেট মানুষের ব্রেণকে অচল করে দিচ্ছে?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ তথ্য প্রযুক্তির বদৌলতে মানুষ ক্রমেই এগিয়ে যাচ্ছে। তবে এইসব প্রযুক্তিই অর্থাৎ ইন্টারনেট মানুষের ব্রেণকে অচল করে দিচ্ছে?

Internet and lazy Brain

খুব সাধারণ কোনো প্রশ্ন করলে আগে মানুষ তার উত্তর দিতে ব্রেণকে ব্যবহার করতো। কিন্তু এখন সেসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ব্রেণ খাটানো থেকে বিরত থেকে ইন্টরনেটের সাহায্য নিচ্ছে। হয়তো এগুলো সবকিছু সহজ করেছে। কিন্তু মানুষকে প্রকৃতপক্ষে অলস করে দিচ্ছে। অর্থাৎ ব্রেণের ব্যবহার থেকে মানুষ বিরত থাকছে। মানুষ ক্রমেই ইন্টারনেটের ওপর অতি নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে।

গবেষকরা মনে করেন, মানুষের মস্তিষ্কে অনেক রকম তথ্য থাকে। তবে মানুষ বর্তমানে আর মাথা খাটাচ্ছে না। তথ্য মনে রাখার পরিবর্তে তা ইন্টারনেটে খুঁজে নিতেই মানুষ বেশি পছন্দ করছে। খোঁজাখুঁজির জন্য ক্রমেই মানুষ ইন্টারনেটের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। যে কারণে নিজের জ্ঞানের অথবা জানার ওপর সন্দেহ তৈরি হচ্ছে।

সাম্প্রতিক এক গবেষণার উদ্বৃত করে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, যাদের ইন্টারনেট-সুবিধা রয়েছে, তারা সাধারণ জ্ঞানের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পূর্বে উত্তর জানা থাকলেও ইন্টারনেটে একবার পরীক্ষা করে নিয়ে থাকেন।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে আরও বলা হয়েছে, কানাডার ওয়াটারলু বিশ্ববিদ্যালয়ের ১শ’ জনের ওপর এই গবেষণাটি চালানো হয়। গবেষণায় প্রশ্ন রাখা হয়, ‘ফ্রান্সের রাজধানী কোথায়?’ ‘সবচেয়ে বড় সমুদ্র কোনটি?’ এই গবেষণায় অংশ নেওয়া ৫০ জনকে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে দেওয়া হয়। আর বাকি ৫০ জনকে ইন্টারনেট-সুবিধা না নিয়ে মাথা খাটিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিতে বলা হয়।

দেখা যায়, যাদের ইন্টারনেট-সুবিধা দেওয়া হয়নি, তাদের অনেকেই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি বা দেননি। উত্তর না জানার কারণ হিসেবে তারা বলেছেন, ইন্টারনেট-সুবিধা নেই। আর যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করেছেন তারা প্রশ্নের উত্তর নিশ্চিত করার উপায় থাকায় সেটা ব্যবহার করেন।

গবেষণা নিবন্ধের সহ-লেখক মনস্তত্ত্ববিদ ইভান রিসকো বলেছেন যে, যখন ইন্টারনেট-সুবিধা হাতের নাগালে থাকে, তখন মানুষ তার জ্ঞানের ওপর নির্ভর করে না। তার মনে হয়, ইন্টারনেট থাকা মানেই সবজান্তা এক বন্ধুর কাছেই জেনে নেওয়া ভালো!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...