স্মার্টফোন এবার হয়ে যাচ্ছে পাসপোর্ট!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দিন যতো গড়াচ্ছে ততোই বাড়ছে স্মার্টফোনের ব্যবহার। এবার নতুন এক প্রযুক্তি যুক্ত হতে চলেছে। স্মার্টফোন এবার হয়ে যাচ্ছে পাসপোর্ট!

smartphone is a passport

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে এই নতুন প্রযুক্তির কথা। যেমন আপনি হয়তো তাড়াহুড়ো করে প্রস্তুত হয়ে বিমানবন্দরে গিয়ে দেখলেন, ভুলে আপনার পাসপোর্টটাই ঘরে ফেলে এসেছেন। এখন কী হবে? সময়-স্বল্পতার কারণে ফিরে যাওয়াও হয়তো আপনার পক্ষে সম্ভব নয়। তবে এমন সমস্যায় এখন থেকে আর আপনাকে পড়তে হবে না। কারণ এখন সকলের কাছেই স্মার্টফোন থাকে। তাই আপনাকে আর দুশ্চিন্তা করতে হবে না।

সাম্প্রতিক এক গবেষণা এমন সম্ভাবনার কথাই উঠে এসেছে। বর্তমান যুগের আধুনিক পাসপোর্টে ইলেকট্রনিক চিপ রয়েছে, যেটি পাসপোর্টে দেওয়া ব্যক্তির ছবির সঙ্গে বহনকারীর মুখাবয়ব মিলিয়ে দেখে থাকে।

জানা গেছে, বিশ্বের সর্ববৃহৎ পাসপোর্ট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ডি লা রুয়ে ব্রিটিশ ব্যাংক নোটও তৈরি করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি এমন এক প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে, যেটি পাসপোর্টকে ব্যবহারকারীর মুঠোফোনের ভেতর ঢুকিয়ে দেওয়া যাবে! সেক্ষেত্রে স্মার্টফোনটিই ভার্চ্যুয়াল পাসপোর্ট হিসেবে কাজ করবে। যে কারণে কাগজের পাসপোর্ট দেখানোর প্রয়োজন পড়বে না।

কাগজবিহীন এই পাসপোর্টটি অনেকটা মোবাইল বোর্ডিং কার্ডের মতোই কাজ করবে। এটি স্মার্টফোনে সংরক্ষণ করা যাবে এবং ভ্রমণকারী কোনো রকম কাগজ ছাড়াই ভ্রমণ করতে পারবেন।

শুধুমাত্র মুঠোফোনটি হারিয়ে গেলে ভ্রমণকারীর ব্যক্তিগত নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়ার সম্ভাবন রয়েছে। ওই প্রতিষ্ঠান ডি লা রুয়ের একজন মুখপাত্র বলেছেন, ‘কাগজবিহীন পাসপোর্ট আমাদের সাম্প্রতিক সময়ে অনেক উদ্যোগের মধ্যে একটি সাবজেক্ট। তবে এটি এখনও অগ্রগতির প্রাথমিক পর্যায়েই রয়েছে। আরও কিছু সময় লাগবে এটি কার্যকরী করতে।’

দ্য টেলিগ্রাফ বলেছে, এ বিষয়ে নিরাপত্তা-বিষয়ক প্রতিষ্ঠান প্‌রুফপয়েন্টের ডেভিড জেভানস বলেছেন, ‘মোবাইল ফোনে ডিজিটাল পাসপোর্টকে নিরাপদে সংরক্ষণের জন্য নতুন যন্ত্রাংশের প্রয়োজন পড়বে, যা ওই নির্দিষ্ট মোবাইল হতে পাসপোর্টটিকে কপি করতে দেবে না। পাসপোর্টের পাঠকদের নিকট এটিকে পৌঁছে দিতে হবে তারহীন প্রযুক্তির সাহায্যে, িএর ব্যত্যয় ঘটলে পাসপোর্টের মালিকের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়তে পারে।’

সব কিছু বিশ্লেষণ করে বোঝা যাচ্ছে শীঘ্রই এই প্রযুক্তির সফল বাস্তবায়ন আসতে যাচ্ছে। যে প্রযুক্তি মানুষের কল্যাণে ব্যবহার হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...