তথ্য সংরক্ষিত থাকবে ১০০ কোটি বছর!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রযুক্তি মানুষকে এক উচ্চ শিখরে নিয়ে যাচ্ছে। দিন যতো গড়াচ্ছে ততোই এগিয়ে যাচ্ছে সবকিছু। এখন থেকে তথ্য সংরক্ষিত থাকবে ১০০ কোটি বছর!

Data will be stored for 100 million years

এমন এক সময় ছিল যখন তথ্য সংগ্রহের জন্য মানুষকে কতো কিইনা করতে হতো। কিন্তু সেই যুগ এখন শেষ। এখন আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির যুগে আমরা চলমান। তাই তথ্য সংগ্রহের জন্য আমাদের আর ছুটোছুটি করা লাগছে না। এখন সব কিছুই যেনো হাতের নাগালে।

তথ্য সংগ্রহে রাখার ক্ষেত্রে যুগান্তকারী এক পরিবর্তন আনছে ক্রিস্টাল। সুপারম্যান মুভির কথা নিশ্চয়ই মনে আছে? সেখানে এই চকচকে ক্রিস্টাল দেখানো হয়েছিল মেমোরি কার্ডের বিকল্প হিসেবে। এবার বাস্তবেও দেখা মিলতে যাচ্ছে তথ্য সংরক্ষণে ক্রিস্টালের এক মহা চমক। স্থায়িত্ব শুনলে আপনার চোখ কপালে তোলার মতো অবস্থা হবে।

গবেষকরা বলছেন, ক্রিস্টালের তৈরি মেমোরি ডিস্কে তথ্য সংগ্রহ করে রাখা যাবে ১০০ কোটি বছর! ইউনিভার্সিটি অব সাউথ্যাম্পটনের গবেষকরা এক গবেষণায় দেখেছেন যে, ক্রিস্টালের তৈরি ডিস্কের ধারণ ক্ষমতা যেমন বেশি, ঠিক তেমনি তার স্থায়িত্বও অনেক বেশি। যে কারণে এখন থেকে আর কোনো সভ্যতা হারিয়ে যাবেনা। অন্তত তথ্যের মাধ্যমে হলেও টিকে থাকবে কোটি কোটি বছর ধরে।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে যে, ক্রিস্টালের তৈরি এই ডিস্কে প্রায় ৩৬০ টেরাবাইট তথ্য সংরক্ষণ করা যাবে। এসব তথ্য টিকে থাকবে কোটি কোটি বছর। এর অর্থ দাঁড়ালো, এমন একটি ডিস্ক সাধারণ মানের সাড়ে ২২ হাজার আইফোনের সমান তথ্য ধারণ করতে সক্ষম!

সাউথহ্যাম্পটনের বিজ্ঞানীরা সান ফ্রান্সিসকোর এক সম্মেলনের মাধ্যমে ঘোষণা দিয়ে বলেন, তারা এই প্রযুক্তিকে আরও উন্নত ও বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করতে চান।

বিজ্ঞানীদের আবিষ্কৃত এই ছোট্ট ক্রিস্টালের ডিস্কে সংরক্ষণ করা রয়েছে হিউম্যান রাইটস-এর চিরন্তন ঘোষণা ও বাইবেল। গবেষকরা এই তথ্য সংরক্ষণ পদ্ধতিকে বলছেন ৫ডি। অর্থাৎ এই ফরম্যাটে ডাটা সংরক্ষণ করা যাবে ৫ ডাইমেনশনে। এই ডাইমেনশনগুলো হলো- হাইট, লেন্থ, ওয়াইডথ, ওরিয়েন্টেশন ও পজিশন অনুসারে। অর্থাৎ ডাটা কিংবা ছবির সকল কৌণিক দিক হতে তথ্য সংরক্ষণ করা যাবে। যে কারণে যেকোনো ভিডিও চিত্র কিংবা ছবি আগের চেয়েও ভালো মানে সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন তথ্য সংরক্ষণে এমন আধুনিক কোনো টেকনোলজি ইতিপূর্বে এতো ব্যাপকভাবে আসেনি। যে কারণে বিজ্ঞানীরা তাদের স্বপ্নের দুয়ার মেলে দিয়েছেন বহুদূর।

Advertisements
Loading...