‘ইরাকের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ ছিলো অবৈধ’!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যুক্তরাজ্যের উপ-প্রধানমন্ত্রী পদে থাকা জন প্রেসকট দাবি করে বলেছেন, ২০০৩ সালে ইরাক দখল করে যুক্তরাজ্য আন্তর্জাতিক আইন ভেঙেছে।

john prescott uk

ইরাকের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র যে যুদ্ধ চালিয়েছিল তাও অবৈধ ছিল বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

ইরাক দখলের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে সম্প্রতি যুক্তরাজ্য সরকারের প্রকাশিত এক তদন্ত প্রতিবেদনের সূত্র ধরে গত রবিবার এমন মন্তব্য করেন জন প্রেসকট। ইরাক যুদ্ধ নিয়ে ৭ বছর তদন্তের পর ‘চিলকট রিপোর্ট’ নামের ওই তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয় গত বুধবার।

ওই তদন্ত প্রতিবেদনটি যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের ইরাক যুদ্ধে জড়ানোর সিদ্ধান্ত, এর পরিকল্পনা এবং পরিচালনার যৌক্তিকতা নিয়ে তদন্ত করা হয়। প্রতিবেদনে ইরাক দখলের সিদ্ধান্তের জন্য ব্লেয়ারের তীব্র সমালোচনা করা হলেও প্রকৃতপক্ষে যুদ্ধটি বৈধ ছিল কি না সে বিষয়ে কিছুই বলা হয়নি।

এতে আরও বলা হয়, ইরাক অভিযানের ৮ মাস আগে ব্লেয়ার যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশকে বলেছিলেন যে, ‘যাই হোক না কেনো, আপনার সঙ্গে আছি।’

সেই সিদ্ধান্তকে ‘বিধ্বংসী’ বলে উল্লেখ করেছেন জন প্রেসকট। ওই নিবন্ধে মি. প্রেসকট বলেছেন, তিনি ইরাক যুদ্ধের বৈধতা বিষয়ে তার দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করেছেন।

মি. প্রেসকট আরও লিখেছেন, ‘২০০৪ সালে জাতিসংঘের মহাসচিব কফি আনান বলেছিলেন, ক্ষমতা পরিবর্তন ইরাক যুদ্ধের প্রধান লক্ষ্য হওয়ার কারণে তা অবৈধ। অনেক দুঃখ এবং ক্ষোভের সঙ্গে এখন আমি বিশ্বাস করছি যে তিনিই ঠিক ছিলেন।’

‘বাকী জীবন এই যুদ্ধে যোগ দেওয়া ও তার বিপর্যয়কর ফলাফলের দায় নিয়ে বেঁচে থাকবো আমি’-এমন মন্তব্য করেছেন জন প্রেসকট!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...