‘মুসলিমদের সম্পর্কে মোদি এবং ট্রাম্প একই সুরে কথা বলছেন’

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলিমদের সম্পর্কে প্রায় একই সুরে কথা বলছেন বলে অভিযোগ করেছেন দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) স্টুডেন্ট ইউনিয়নের সভাপতি কানহাইয়া কুমার।

Modi and Triumph

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, সোমবার কোঝিকোড়ে এআইএসএফ-এর ৩ দিনব্যাপী জাতীয় সাধারণ পরিষদের সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

অল ইন্ডিয়া ইয়ুথ ফেডারেশনের নেতা কানহাইয়া কুমার এ সময় বলেন, ‘আরএসএসের ফ্যাসিস্ট মুখপাত্র মূলত মুসলিম বিরোধী রাজনীতি প্রচার করছেন।’

কানহাইয়া আরও বলেন, ‘আমেরিকাতে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন মুসলিম ও কালোদের আমেরিকা হতে বেরিয়ে যাওয়া উচিত। আর ভারতে মোদির নেতৃত্বও একই লাইনে মুসলিম, দলিত ও অন্য সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে কথা বলছেন।’

‘আরএসএস ও বিজেপি গরুর নামে জনগণকে শাস্তি দিচ্ছে। মানুষদের বিভক্ত করতে সাম্প্রদায়িক অনুভূতিকে সমুজ্জ্বল করে তুলছে’ বলেও কানহাইয়া মন্তব্য করেছেন।
তিনি ভারতের কেরালা রাজ্যকে সোমালিয়ার সঙ্গে তুলনা করার জন্যও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কঠোর সমালোচনা করেন।

গত মাসে কানহাইয়া কুমার বিহারের বেগুসরাইয়ে এক অনুষ্ঠান উপলক্ষে যেসব স্থানে তিনি গিয়েছিলেন সেসব স্থানগুলো গঙ্গার পানি ছিটিয়ে দেয় আরএসএস তথা বিজেপি’র ছাত্র শাখা এবিভিপি কর্মীরা। এমনকি সেখানকার শহরে তিনি যে মহান ব্যক্তির মূর্তিতে মালা দেন তাও গঙ্গার পানি দিয়ে ধুয়ে ‘তথাকথিত’ শুদ্ধ করার চেষ্টা করে কর্মীরা। তাদের দাবি হলো, কানহাইয়ার আগমনে বেগুসরাইয়ের মাটি ‘অপবিত্র’ হয়ে গেছে!

অবশ্য এআইএসএফ রাজ্য নেত্রী অমৃতা কুমারী মন্তব্য করেন যে, ‘এই ধরণের তৎপরতার কারণে অসুস্থ মানসিকতা প্রকাশ পেয়েছে। এটা সেই বর্ণবাদী মানসিকতা যা অস্পৃশ্যতাকে বৈধতা দেয় ও যারা বলে থাকে মন্দিরে দলিতরা প্রবেশ করলে মন্দির অপবিত্র হয়ে যায়।’

তিনি মন্তব্য করেছেন যে, মহান ব্যক্তিদের ‘পবিত্র’ করার মানসিকতাই হলো অপবিত্র!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...