সিঁদুর পরলেই আল্লাহ দোজখে দিবেন?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সমালোচনায় তুলাধুনো হতে হয়েছে কোলকাতার ছোট পর্দার অভিনেত্রী সানা আমিন শেখকে! অনেকেই বলেছেন, সিঁদুর পরলেই আল্লাহ দোজখে দিবেন!

wearing vermilion hell

ফেসবুক, টুইটার ও ইনস্টাগ্রামের মতো আধুনিক যোগাযোগ মাধ্যম হওয়ায় তারকাদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষণ খুবই সহজ হয়ে গেছে। তবে এগুলোর যেমন সুবিধা রয়েছে, তেমনি অসুবিধাও কম নয়। কখনও কখনও এই মাধ্যমেই ভক্ত অনুরাগীরা তারকাদের সৃষ্টি করেন নানা বিড়ম্বনায়ও। সম্প্রতি এমন বিড়ম্বনা আর সমালোচনায় তুলাধুনো হতে হয়েছে কোলকাতার ছোট পর্দার অভিনেত্রী সানা আমিন শেখকে!

ফেসবুক টুইটারে সক্রিয় অভিনেত্রী সানা আমিনকে ভক্ত-অনুরাগীরা নানা রকমভাবে হেনস্থা করে চলেছেন। সোশাল সাইটে তাকে তার অভিনয় নিয়ে হতে হচ্ছে তুলোধুনো। এর কারণ হলো ‘কৃষ্ণদাসী’ নামের একটি সিরিয়ালে ব্যক্তিগতভাবে মুসলিম হওয়া সত্বেও সিঁদুর পরেছিলেন এই অভিনেত্রী। এতেই চটেছেন কিছু কট্টরপন্থি মুসলিমরা! তার বিরুদ্ধে নানা স্ট্যাটাস দেওয়া হয়েছে।

সানা আমিনের সিঁদুর পরার বিষয়টিকে তারা ভালোভাবেতো নেনইনি উল্টো তার সমালোচনা ও ধর্মের নীতিবাক্য শুনিয়ে অসংখ্য মানুষ মন্তব্য করেছেন। কেও তাকে সিঁদুর পরার জন্যে দোজখে যাবেন বলেও ভয় দেখিয়েছেন। এমনকি অনেকেই তাদের মন্তব্যে ‘সিঁদুর’ পরার কারণে সানা আমিনকে ‘অমুসলিম’ এবং ‘হিন্দু’ বলেও আখ্যা দিয়েছেন!

কিন্তু সানা আমিন এসব সমালোচনাকে পাত্তা দিতে নারাজ। তিনিও ভক্তদের এমন প্রতিক্রিয়াশীলতার জবাব দিয়েছেন কড়া ভাবেই। ফেসবুকে একটি পোস্ট করে সানা আমিন যুক্তি দিয়ে বিষয়টি বোঝার কথা বলেছেন।

ওইসব সমালোচনাকারীদের প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে সানা আমিন বলেছেন, আমার ইচ্ছা হয়েছে আমি সিঁদুর পরেছি, তাতে করে কি আমার মুসলমানিত্ব কমে যাবে? তাছাড়া আমার নানি ও মাও মঙ্গলসূত্র পরেন, তাহলে কি তারা হিন্দু হয়ে গেছেন?

আপনি খারাপ কাজ করে বেড়ালেও আপনি জান্নাতে যাবেন। আর সামান্য সিঁদুর পরার কারণে আল্লাহ আমাকে দোজখে দিয়ে দিবেন? সেটি কী ঠিক?

Advertisements
Loading...