এক ষাঁড়ের দাম ২৫ লাখ টাকা!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ কোরবানির ঈদ এলে গরু-ছাগলের দাম নিয়ে মুখরোচক নানা কাহিনী উঠে আসে। এবার তাই হয়েছে। এক ষাড়ের দাম উঠেছে ২৫ লাখ টাকা!

A bull's price of Rs 25 lakh

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা যায়, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার দেলুয়া গ্রামের পরিষ্কার বিবির একটি ষাড়ের দাম উঠেছে ২৫ লাখ টাকা। ওই ষাঁড়টি দেখতে জনসাধারণের ভিড় ক্রমেই বাড়ছে।

জানা গেছে, সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে লালন-পালন করা এই ষাঁড়টি এক নজর দেখতে উৎসুক জনতা সাটুরিয়া উপজেলা ছাড়াও আশেপাশের বিভিন্ন গ্রাম হতে ভীড় করছেন। এই ষাঁড় সাড়ে ৩ বছর ধরে লালন-পালন করে আসছেন।

এই ষাঁড়টিকে লক্ষ্মী বলে ডাকলে সে কথা বেশি শোনে, ষাড়টির রাগ উঠলে নলকুপের ঠাণ্ডা পানি শরীরে ছিটিয়ে দিলেই সে শান্ত হয় বলে জানান পরিষ্কার বিবি।

সাটুরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. নিতাই চন্দ্র দাস বলেন, পরিষ্কার বেগমের এই ষাঁড় আমরা গত দুই বছর ধরে পর্যবেক্ষণ করছি। এই ষাঁড়কে কোনো প্রকার মোটা-তাজাকরণ ওষুধ সেবন ছাড়া দেশীয় পদ্ধতিতে লালন-পালন করা হচ্ছে।

এই ষাঁড়ের উচ্চতা ৫ ফিট ৬ ইঞ্চি, লম্বা ৯ ফিট, বেড় ৬ হাত। এই ষাড়টির সর্বনিন্ম ওজন ৩৫ মন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে মানিকগঞ্জ জেলার সবচেয়ে বড় ও বেশি ওজন এই ষাঁড়ের।

পরিষ্কার বিরির মেয়ে ইতি আক্তার জানিয়েছেন, তাকে ছাড়া কেও তার এই ষাঁড় লক্ষ্মীকে শান্ত করতে পারে না। ষাড়টিকে বিভিন্ন রকমের দেশীয় খাবার খাওয়ানো হয়। তিন বেলা বড় ধরনের খাবার খাওয়াতে হয় এই ষাড়টিকে। চিড়া, ছোলা, গুড় ও ভূষি পানিতে ভিজিয়ে রাখার পর মিষ্টি লাউ, কুমড়া কেটে সিদ্ধ করে সব একত্র করে প্রতিদিন তিন বেলা খাওয়ানো হয় এই ষাড়টিকে।

Advertisements
Loading...