প্রতিদিন পাঁচ কাপ কফি পান মৃত্যুর কারণ হতে পারে

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ প্রতিদিন পাঁচ কাপ কফি পানের সাথে স্বাস্থ্য বৃদ্ধি ও দুরারোগ্য রোগের সম্পর্ক রয়েছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ বিষয়টি উঠে এসেছে। এটি হচ্ছে মাত্রাতিরিক্ত কফি পানের ফলে সৃষ্ট জটিলতা নিয়ে প্রথম গবেষণা।


coffee

প্রতিদিন ৫ কাপ কফি পানের ফলে শরীরে অতিরিক্ত চর্বি তৈরি হয় যা মৃত্যুর কারন হতে পারে। বিষয়টি নিয়ে সাম্প্রতিক নিউজ ডট কম একটি রিপোর্ট করে।

কফির একটি যৌগ যার নাম কলরোগেনিক এসিড (CGA) মানুষের সাস্থের জন্য ভালো বলেই এতদিন ধারণা করা হতো, কিন্তু সাম্প্রতিক গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে দৈনিক ৫ কাপ কফি পান সাস্থের জন্য চরম ঝুঁকিপূর্ণ। কারন এর ফলে দেহের অর্গান সমূহ বৃদ্ধি পেয়ে আপনাকে মৃত্যু ঝুকিতে ফেলতে পারে।

University of Western Australia এর এক দল গবেষক কফির কলরোগেনিক এসিডের উপকারীটা খুজতে গিয়ে দেখতে পান মাত্রাতিরিক্ত কফি পানের ফলে এই কলরোগেনিক এসিড মানুষের শরীরে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। গবেষকরা একটি ইদুরের উপর কফির মাত্রা বিষয়ক এ পরীক্ষা করে দেখেন ইঁদুর টির পাকস্থলীতে চর্বির অস্বাভাবিক বৃদ্ধি হয়ছে।

The University of Western Australia এর প্রফেসর Kevin Croft বলেন, “ আমাদের আগের গবেষণা ছিল আল্প পরিমাণ কফির উপর যেমন দিনে এক কাপ, সেক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাই এটি মানুষের সাস্থের জন্য ভালো। পরিমান মত কফি পানের ফলে টাইপ-২ ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি কমে। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা কফিতে থাকা CGA নিয়ে আরও গভীর গবেষণা করি’।

Kevin Croft বলেন, “নতুন গবেষণায় আমরা দেখতে পেলাম CGA মানুষের অন্ত্রে ও পাকস্থলীতে অতিরিক্ত চর্বি তৈরি করে এবং শরীরের ব্লাড প্রেসার বৃদ্ধি করে। এর ফলে হার্টের রোগ সহ নানান শারীরিক জটিলটার সৃষ্টি হয়। দৈনিক ৫ কাপের অধিক কফি পানের ফলে শরীরে CGA এর যে বৃদ্ধি ঘটে তার ফলে ইনসুলিন ও গ্লুকজের পরিমাণও বৃদ্ধি পায়। এটি ডায়াবেটিস রোগীর জন্য ক্ষতির কারন।“

এই গবেষণার ফলে যে বিষয়টি উঠে এসেছে তা হলো কফি খাওয়া যাবে তবে অবশ্যই তা মাত্রার ভেতরে অর্থাৎ ১,২ কাপ বা ৫ কাপের ভেতরেই থাকতে হবে অন্যথায় এটি মৃত্যুর কারন হতে পারে।

তথসূত্রঃ ইন্ডিয়া টুডে

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...