অন্ধ সেজে ২৮ বছর!

২৮ বছর পূর্বে তিনি হঠাৎ করেই একদিন সবাইকে বলতে শুরু করেন যে, তার চোখে মারাত্মক আঘাত লেগেছে, তিনি কিছুই দেখতে পাচ্ছেন না

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ অন্ধ না হয়েও অন্ধ সেজে এক নারী পার করে দিয়েছেন জীবনের ২৮টি বছর। এতোগুলো বছর তার পরিবার বা সমাজের চোখে ধুলো দিয়ে সে অন্ধের অভিনয় করে আসলেও তার চারপাশের কেও একবারও বুঝতে পারেনি। কেনো তিনি এমন অভিনয় করলেন?

ওই নারী কেনো এমন কাজ করেছেন এই প্রশ্নের উত্তরে যা শুনিয়েছেন তাতে তাজ্জব বনে গেছে সকলেই। স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদ শহরের বাসিন্দা ওই নারীর নাম কারমেন জিমেনেজ। ২৮ বছর পূর্বে তিনি হঠাৎ করেই একদিন সবাইকে বলতে শুরু করেন যে, তার চোখে মারাত্মক আঘাত লেগেছে, তিনি কিছুই দেখতে পাচ্ছেন না।

চোখে আঘাতের চিহ্ন ফুটিয়ে তোলার জন্য কারমেন মেকাপের সাহায্য নেন। তিনি চোখে এমনভাবে মেকআপ করেন যে সবাই সেটাকে আঘাতের চিহ্ন হিসেবেই ধরে নেন। অন্ধ হওয়ার এই অভিনয় যখন তিনি শুরু করেছিলেন তখন তিনি ছিলেন ২৯ বছরের যুবতী। এখন তার বয়স ৫৭। মাঝখানে কেটে গেছে বহুদিন। এই পুরোটা সময় অন্ধের অভিনয় করে গেছেন ওই নারী!

চলতি মাসে হঠাৎ করেই কারমেন সবাইকে জানিয়েছেন যে, তিনি আসলেও অন্ধ নন। এতোদিন তিনি অন্ধ সেজে অভিনয় করেছেন। এমন কথা শোনার পর সবচেয়ে বেশি অবাক হয়েছেন তার পরিবারের লোকজন।

তবে অন্ধ না হয়েও কেনো এই অভিনয়? স্থানীয় একটি দৈনিক হে নোটিশিয়ার এই প্রশ্নের জবাবে কারমেন বলেছেন, তিনি মানুষের সঙ্গে মিশতে তেমন একটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না। বিশেষ করে কারও সঙ্গে দেখা হলে তিনি ‘হ্যালো’ বলতে প্রচণ্ড বিরক্তবোধ করে থাকেন। নিজের এই অপছন্দের কাজগুলো হতে বিরত থাকার জন্যই তিনি অন্ধ সেজে ছিলেন এতো বছর!

আসল সত্যটি জেনে কারমেনের পরিবার খুশি হলেও কারমেন মোটেও স্বস্তিতে নেই। তার কারণ হলো অন্ধ না হয়েও তিনি প্রকৃত অন্ধদের জন্য রাষ্ট্র যেসব সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকে সেগুলো ভোগ করেছেন। যে কারণে স্পেনের আইন অনুযায়ী তিনি সাজা এবং জরিমানার সম্মুখীন হতে চলেছেন।

Advertisements
Loading...