বিদ্যুৎ বিল বেশি আসলে কী করবেন? আজ জেনে নিন

আমাদের দেশে বিশেষ করে বিদ্যুত বিলের ক্ষেত্রে বেশি ঘটে থাকে দুশ্চিন্তা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ গরমের সময় আসলে বিদ্যুতের বিলও বাড়তে থাকে। আর তখন বিল দিতে গিয়ে মাথা খারাপের মতো অবস্থা হয়। তাহলে বিদ্যুৎ বিল বেশি আসলে কী করবেন? আজ জেনে নিন।

আমাদের দেশে বিশেষ করে বিদ্যুত বিলের ক্ষেত্রে বেশি ঘটে থাকে দুশ্চিন্তা। তার কারণ হলো গরমের সময় এলে বিদ্যুৎ বিল বেশিরভাগ সময়ই বেশি আসে। আর সেই বিল দেখে যে কারও মাথা খারাপ হতে পারে, আর সেটিই স্বাভাবিক। গ্যাস বিল ফিক্সস থাকায় সেটি নিয়ে অবশ্য কাওকে খুব একটা ভাবতে হয় না। কিন্তু বিদ্যুৎ বিল নিয়ন্ত্রণ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। তবে একটু সচেতন হলেই বিদ্যুৎ বিলও আমাদের নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব।

কী কী করতে হবে বিদ্যুৎ বিল নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে?

# আপনি কী অপ্রয়োজনে ফ্যান, লাইট, টিভি, কিংবা কম্পিউটার চালিয়ে রাখেন? যদি সেই বদঅভ্যাস থাকে তাহলে আজই সেই অভ্যাস থেকে আপনি বের হয়ে আসুন।

# বিদ্যুৎচালিত যন্ত্রপাতি ব্যবহারের পর শুধু সু্ইচ নয়, সবসময় প্লাগও খুলে রাখুন। বাসায় কাপড় আয়রণ না করায় ভালো। যদি করতে হয় তাহলে ইস্ত্রি গরম হওয়ার পর সুইচ অফ করে কাপড় ইস্ত্রি করুন, এতেকরে কিছুটা হলেও বিদ্যুৎ কম খরচ হবে। তাছাড়া আপনার রুমও থাকবে ঠাণ্ডা।

# আমরা জানি গরমকালে যেহেতু বিদ্যুৎ বেশি খরচ হয়, তাই খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া এসি, ওভেন কিংবা ওয়াশিং মেশিন জাতীয় ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্রপাতিগুলোর ব্যবহার কম করাই ভালো।

# যে ঘরে রাতে মানুষ থাকছে না সে ঘরের লাইট অফ করে রাখার অভ্যাস করুন। এতেকরে বেশ বিদ্যুৎ সাশ্রয় হবে। ছোটখাটো কাজে ইলেক্ট্রনিক্স মেশিনপত্র ব্যবহারে বিরত থাকায় ভালো।

বিদ্যুৎ ব্যবহার সাশ্রয়ী হওয়ার বিষয়টি অনেকখানিই অভ্যাসের উপর নির্ভর করে। তাই এখন থেকেই এ ব্যাপারে সচেতন হতে হবে, তাহলে বিদ্যুৎ বিল নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং বিদ্যুৎ বিল দিতে গিয়ে আর আপনার মাথাও খারাপ হবে না।

Advertisements
Loading...