৩০টি গুলি খেয়েও বেঁচে গেছে যে বিড়ালটি!

ইংল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্টি এসেক্সের আরদলেই শহরের বাসিন্দা ডগ টাউ একের পর এক গুলির শব্দে চমকে উঠলেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সত্যিই এক বিস্ময়কর ঘটনা। ৩০টি গুলি বিদ্ধ হয়েও বেঁচে গেছে একটি বিড়াল! এমন ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্টি এসেক্সের আরদলেই শহরে।

ইংল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় কাউন্টি এসেক্সের আরদলেই শহরের বাসিন্দা ডগ টাউ একের পর এক গুলির শব্দে চমকে উঠলেন। তিনি ভাবলেন হয়তো কোনো শখের শিকারি পাখি শিকার করছে। কিন্তু যে গুলিকে তিনি শিকারির গুলি ভেবে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছিলেন, সেই গুলি দিয়ে যে তার প্রিয় বিড়ালটির দেহকে ক্ষতবিক্ষত করে দেওয়া হয়েছে তা তিনি কল্পনাও করেননি কখনও।

একটি কথা সকলকেই স্বীকার করতেই হবে আর তা হলো, সৃষ্টিকর্তা যাকে বাঁচিয়ে রাখতে চান, তাকে মারবার সাধ্য কারও নেই। তাই ছোট্ট একটি বিড়ালের শরীরে একটি-দুটি নয়, ৩০টি গুলির আঘাত নিয়েও বেঁচে রয়েছে ডগ টাউয়ের প্রিয় বিড়ালটি!

আরএসপিসিএ’র পশু চিকিৎসক অ্যাডাম জোন্স এমন এক আজব ঘটনায় বিস্মিত। এক্সরে রিপোর্ট দেখিয়ে তিনি বলেছেন, ‘একটি গুলি তার পায়ের পাতায় লেগেছে, একটি চোখে, দুটি কোনো রকমে তার মেরুদণ্ডের পাশ ঘেষে বেরিয়ে গেছে ও বাকিগুলো তার দেহের বিভিন্ন অংশে গিয়ে লেগেছে। চোখে আঘাত করেছে একটি গুলি। যে কারণে সবচেয়ে মারাত্মক হওয়ায় তার একটি চোখ বাদ দিতে হবে। তবে এতগুলো গুলি দেহে নিয়ে কীভাবে বিড়ালটি বেঁচে রয়েছে সেটিই সকলের কাছেই বিস্ময়ের ব্যাপার।’

ডগ টাউ বাকরুদ্ধ তার প্রিয় বিড়ালের এমন করুণ দশা দেখে। তিনি বলেছেন, ‘পসপসকে (তার বিড়ালটির নাম) আমি যখন এক সপ্তাহ পরে খুঁজে পেয়েছি সে তখন একটি গাড়ির নিচে রক্তাক্ত শরীর নিয়ে ভয়ে কুঁকড়ে ছিল। আমি ভাবতে পারি না মানুষ কতোটা নিষ্ঠুর হলে এই ধরনের অমানবিক কাজ করতে পারে!’ তবে এতো গুলো গুলি লাগার পরও বেঁচে গেছে তার বিড়ালটি!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...