সাপের চামড়া মানুষের শরীরে: অদ্ভুত এক রোগ!

বিরল রোগে আক্রান্ত মেয়েটির বয়স ১৬। তার পুরো শরীরেই রয়েছে সাপের মতো চামড়া

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পৃথিবীতে যে কতো রকম রোগ আছে তা গুনে শেষ করা যাবে না। তবে কিছু কিছু রোগকে অদ্ভুত না বলে পারা যায় না। এমনই এক চর্মরোগ মানুষের শরীরে যা দেখতে অনেকটা সাপের চামড়ার মতোই!

এমন একটি বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছে একটি মেয়ে। যার বয়স ১৬। তার পুরো শরীরেই রয়েছে সাপের মতো চামড়া। প্রতি ৬ সপ্তাহ অন্তর অন্তর চামড়া উঠে গিয়ে আবার নতুন চামড়া গজায়। বিরল রোগে আক্রান্ত এই মেয়েটির নাম শালিনী যাদব। ভারতের মধ্যপ্রদেশের ছত্রপুর জেলায় তার বাড়ি।

বিরল এক রোগের শিকার এই কিশোরী। এমন এক বিরল রোগে আক্রান্ত শালিনীকে দেখলে আশপাশের মানুষ সহমর্মিতা না দেখিয়ে বরং ভয়ে আরও দূরে সরে যান।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, শালিনীর এই বিরল রোগের নাম এরিথ্রোডার্মা। অনেকেই এই রোগকে রেডম্যান সিনড্রোমও বলে থাকেন। ঘণ্টায় ঘণ্টায় চামড়ার পরিচর্যা করতে হয়। স্নানও করতে হয় সাবান দিয়ে। মাখতে হয় এক ধরনের ক্রিম। আবার লাঠি ছাড়া হাঁটতেও পারে না এই কিশোরী। তার যন্ত্রণাকে না বুঝে দূরে সরে থাকতে চান তারই প্রতিবেশীরা। সবার কাছেই যেনো অবজ্ঞার পাত্রী এই কিশোরী। মানুষ হিসেবে সমাজের আর দশ জনের মতো চলাচল করতে পারে না এই কিশোরী। মোট কথা এক অসহায় জীবন যাপন করতে হচ্ছে তাকে।

শালিনীর এই রোগ সম্পর্কে চিকিৎসকরা বলেছেন, এই রোগের চিকিৎসা রয়েছে। তবে সেটি অনেক ব্যয়বহুল। তাই শালিনীর পরিবার এই ব্যয়ভার নিতে পারছে না। তাই চিকিৎসা ছাড়াই চলছে তার জীবন। সঠিকভাবে চিকিৎসা করতে পারলে পুরোপুরি না হলেও হয়তো স্বাভাবিকভাবেই জীবন যাপন করতে পারতো শালিনী।

Advertisements
Loading...