শেষ পর্যন্ত কী সত্যিই তালাক হয়ে যাচ্ছে অপু শাকিবের মধ্যে?

গতকালের শুনানীতে শাকিব খান কিংবা তার কোনো প্রতিনিধি শুনানীতে অংশ নেয়নি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শেষ পর্যন্ত কী সত্যিই তালাক হয়ে যাচ্ছে অপু শাকিবের মধ্যে? এমন প্রশ্ন এখন সবার মুখে মুখে। শাকিব খানের দেওয়া তালাক নোটিশের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পারিবারিক আদালতে গতকাল (সোমবার) শুনানী হয়। সেখানে উপস্থিত হন অপু বিশ্বাস।

তবে গতকালের ওই শুনানীতে শাকিব খান কিংবা তার কোনো প্রতিনিধি শুনানীতে অংশ নেয়নি বলে জানা গেছে। ওইদিন অপু বিশ্বাস দুপুর ১২টার দিকে কর অঞ্চল-৩ এর কার্যালয়ে উপস্থিত হন। সেখানে আরও উপস্থিত ছিল তারই মামা স্বপন বিশ্বাস। প্রায় ৩০ মিনিট তাদের বিচ্ছেদের ওপর শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। শাকিব খান উপস্থিত না হওয়ায় পরবর্তী শুনানীর তারিখ ধার্য করা হয় আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি।

শুনানী শেষে অপু বিশ্বাস সাংবাদিকদের বলেন, শাকিব খান যে তালাক নোটিশ পাঠিয়েছেন সেখানে তার যে স্বাক্ষর দেখা যাচ্ছে সেটির সঙ্গে শাকিবের সাক্ষরের কোনো রকম মিল নেই। আমি আগে তার যে স্বাক্ষর দেখেছি এবং এখানে যেটি দেওয়া এটা তার নয়।

অপু বিশ্বাস আরও বলেন যে, তালাক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য এখানে যে সমস্ত তথ্য প্রমাণ দেওয়া হয়েছে তাতেও অনেক ঘাটতি রয়েছে। তাছাড়া আমার একটি সন্তান রয়েছে, আমি ধর্মান্তরিতও হয়েছি। আমি শাকিবের সঙ্গে সংসার করতে চাই।

ডিএনসিসি কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা দুই পক্ষকে হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ করেছিলাম। তবে এখানে একপক্ষ এখনও আসেননি। তাই পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১২ ফেব্রুয়ারি। আমরা আরেকটি নোটিশ জারি করবো। এরপর যদি না হাজির না হন তাহলে আমরা তৃতীয় আরেকটি নোটিশ দেবো। তারপরও যদি হাজির না হন, তাহলে ডিভোর্সটি কার্যকর হয়ে যাবে।

উল্লেখ্য, শাকিব খান বর্তমানে ব্যাংককে রয়েছেন। সেখানে তিনি `চিটাগাইঙ্গা পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া` ছবির গানের শ্যুটিং করছেন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...