The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

লাইভ দেখানোর প্রতিবাদ : ফেসবুক-গুগলে বিজ্ঞাপন বন্ধ!

১৭ মিনিটের ভিডিওটি ফেসবুক ছাড়াও ইউটিউব এবং টুইটারে শেয়ার হলে পরে তা সেগুলো অবশ্য সরিয়ে নেওয়া হয়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে শেতাঙ্গ বন্দুকধারীর চালানো বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞের লাইভ প্রচার করায় ফেসবুক এবং গুগলে বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করছে নিউজিল্যান্ডের বৃহত্তম কোম্পানিগুলো।

লাইভ দেখানোর প্রতিবাদ : ফেসবুক-গুগলে বিজ্ঞাপন বন্ধ! 1

নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড জানিয়েছে, এএসবি ব্যাংক, লোট্টো এনজেড, বার্গার কিং, ও স্পার্কের মতো ব্র্যান্ডের মতো নিউজিল্যান্ডের প্রতিষ্ঠানগুলোও অনিয়ন্ত্রিত ফেসবুক লাইভের প্রতিবাদ জানাতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ইন্টারনেটে অনিয়ন্ত্রিত কন্টেন্টের কারণে যে অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে তার বিরুদ্ধে জোটবদ্ধ হয়েছে দেশটির প্রতিষ্ঠানগুলো।

উল্লেখ্য, অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত শেতাঙ্গ সন্ত্রাসী ব্রেন্টন ট্যারেন্টের একটি গো-প্রো ক্যামেরা ব্যবহার করে হত্যাকাণ্ডের ওই লোমহর্ষক ঘটনাটি সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। তার এই লাইভ ভিডিওর মাধ্যমে বীভৎস এবং নারকীয় এই হত্যাকাণ্ডটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

১৭ মিনিটের ভিডিওটি ফেসবুক ছাড়াও ইউটিউব এবং টুইটারে শেয়ার হলে পরে তা সেগুলো অবশ্য সরিয়ে নেওয়া হয়।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরদার্ন ভিডিওটি মুছে ফেলার জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানান। তিনি বলেছিলেন, ফেসবুকের কাছে জানতে চাইবেন বন্দুকধারী ওই নারকীয় হত্যাযজ্ঞ কীভাবে লাইভ প্রচার করতে পারলো।

উল্লেখ্য যে, গত শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে বন্দুকধারীর গুলিতে ৫০ জনের মৃত্যু ঘটেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের ৫ জনের প্রাণহানির খবর নিশ্চিত হয়েছে। তবে নিহত বাংলাদেশীর সংখ্যা ৮ জন হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এম আবদুল মোমিন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৪৮ জন। নিখোঁজ রয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় বইছে।

ভয়াবহ এই হামলার পর নিউজিল্যান্ডের সবধর্মের মানুষ মুসলিম কমিউনিটির পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...