The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

শাওমি আরও ১০টি ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে আনছে

এই ঘোষণার পর তরুণ প্রজন্ম যেনো আরও উদগ্রিব হয়ে রয়েছেন কবে তারা শাওমির নতুন স্মার্টফোন হাতে পাবেন তা নিয়ে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চীনের শাওমি ঘোষণা দিয়েছে যে, ২০২০ সালে তারা ১০টি ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে ছাড়বে। আর এই ঘোষণার পর তরুণ প্রজন্ম যেনো আরও উদগ্রিব হয়ে রয়েছেন কবে তারা শাওমির নতুন স্মার্টফোন হাতে পাবেন তা নিয়ে।

শাওমি আরও ১০টি ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে আনছে 1

বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চীনের শাওমি ঘোষণা দিয়েছে যে, ২০২০ সালে তারা ১০টি ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে ছাড়বে। আর এই ঘোষণার পর তরুণ প্রজন্ম যেনো আরও উদগ্রিব হয়ে রয়েছেন কবে তারা শাওমির নতুন স্মার্টফোন হাতে পাবেন তা নিয়ে।

গত রবিবার (২০ অক্টোবর) প্রতিষ্ঠানটির সিইও লেই জুন চীনের উ ঝেন শহরে অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইন্টারনেট সম্মেলনে এই ঘোষণাটি দিয়েছেন। আন্তর্জাতিক সংবাদ সূত্রে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

এই বিষয়ে লেই জুন বলেছেন, শাওমি তাদের নিজস্ব বাজারে প্রতিদ্বন্দ্বী স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে টেকনোলজির চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছে। সেপ্টেম্বর মাসে শাওমি তাদের প্রথম ফাইভ জি স্বয়ংক্রিয় স্মার্টফোন শাওমি এমআই নাইন প্রো বাজারে আনে।

লেই জুন আরও জানিয়েছেন, ওই স্মার্টফোনের চাহিদানুসারে তারা বাজারে সরবরাহ করতে বেশ হিমশিম খেয়েছেন। বাজারে তাদের প্রথম ফাইভজি স্মার্টফোনের এরকম চাহিদা দেখার পর তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যে, আগামী বছরে উচ্চ, মধ্য ও নিম্ন দামের ক্যাটেগরিতে তারা ১০টি ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে ছাড়বেন।

লেই জুন আরও বলেছেন, এই ইন্ডাস্ট্রিতে সবাই আশংকা করছেন আগামী বছর হতে ফোরজি স্মার্টফোনের বিক্রি বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তাই ফাইভজি স্মার্টফোন উৎপাদনে না গিয়ে বর্তমানে তাদের আর কোনো উপায় থাকছে না। তিনি অপারেটর কোম্পানিগুলোকে বলেছেন যে, তারা যেনো তাদের নেটওয়ার্ককে ফাইভজি উপযোগী করে গড়ে তোলেন।

অপরদিকে ২০১৯ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে শাওমি চীনের স্মার্টফোন মার্কেটের ১১.৮ শতাংশ দখল করতে সক্ষম হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে সংবাদ মাধ্যমের খবরে।

উল্লেখ্য যে, চীনের বাইরে ইউরোপের বাজারে নতুন কোম্পানি হয়েও খুব কম সময়ের মধ্যে শাওমি বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল ব্র্যান্ড হিসেবে ২০১৯ সালের দ্বিতীয় প্রান্তিকে শাওমি ৯.৬ শতাংশ ইউরোপের বাজার দখল করতে সক্ষম হয়েছে বলে সংবাদ মাধ্যমের এক তথ্যে জানা যায়। বাংলাদেশেও শাওমি খুব কম সময়ের মধ্যে বাজার দখল করতে সমর্থ হয়েছে। বর্তমানে শাওমির স্মার্টফোন তরুণ প্রজন্মের হাতে হাতে দেখা যায়।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...