The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

করোনা নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে নানা কর্মকাণ্ড

খুব অল্প সময়ের মধ্যেই প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস চীন হতে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ খুব অল্প সময়ের মধ্যেই প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস চীন হতে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও উদ্বেগের পারদ দিন দিন যেনো উত্তপ্ত হচ্ছে।

করোনা নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে নানা কর্মকাণ্ড 1

খুব অল্প সময়ের মধ্যেই প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস চীন হতে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও উদ্বেগের পারদ দিন দিন যেনো উত্তপ্ত হচ্ছে।

মানুষের এই উদ্বেগে অনেকটা আগুনে ঘি ঢালার মতো কাজ করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো। যে কারণে চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ছে আতঙ্ক। দেখা মিলছে ফেইক নিউজ, হস্যাত্মক ভিডিও এমনকি ছবিও।

করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পেছনে অদ্ভুত সব কারণকে দায়ি করার পাশাপাশি, করোনা ভাইরাসের অনেক চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পর্কেও বলা হচ্ছে এই সব ভুয়া সংবাদে। এমনকি বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা অনেক, এমন দাবিও তোলা হয়েছে ওই সব সংবাদে।

যদিও বাংলাদেশে এ পর্যন্ত মাত্র ৩৯ জন করোনা ভাইরাসের রোগি সনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৫ জন। রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট (আইইডিসিআর) এই সব তথ্য দিয়েছে।

সামাজিক মাধ্যমে এই সংক্রান্ত গুজব ছড়িয়ে পড়া নিয়ে উদ্বিগ্ন রয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, এই ধরণের ফেইক নিউজ ভাইরাসের মতোই ক্ষতিকরও হতে পারে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরনের গুজব ছড়ানো হচ্ছে মন্তব্য করে এই ধরনের প্রচারে কান না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। এক্ষেত্রে উদ্বিগ্ন না হয়ে সচেতন হওয়ার জন্য সবাইকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

শুধু গুজব আতঙ্কই নয়, করোনাকে কেও কেও আবার হাস্যাত্মকভাবেও উপস্থাপন করছেন। টিকটক ভিডিও এবং ছবি প্রকাশ করে এটি নিয়ে অনেকটা অবহেলাই করছেন অনেকেই।

এছাড়াও করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা সংক্রান্ত কিছু গুজব ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম গুলোতে। কোথাও বলা হচ্ছে, রসুন, লবঙ্গ, আদাজল খেলে করোনা ভাইরাস ভালো হয়ে যায়। এই নিয়ে অনেকেই বিভিন্ন ওষুধের বিজ্ঞাপনও প্রচারও করছেন। যেগুলোর কোনোই বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই।

এসব গুজবের কারণে একদিকে মানুষ যেমন আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন, ঠিক তেমনি ভুল চিকিৎসার দিকেও ধাবিত হয়ে আরও বিপদ ডেকে আনতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। তাই এই সব গুজবে কখনও কান দেবেন না। সঠিক সংবাদ জানুন এবং সঠিক নিয়ম মেনে চলুন। তাহলে এই প্রাণঘাতি ভাইরাস থেকে আমরা নিজেরা যেমন রক্ষা পাবো তেমনি জাতিকেও রক্ষা করতে পারবো- ইনশাহআল্লাহ্।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...