The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এলো ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন ‘প্রিমো এনফোর’

৩জিবি র‌্যাম ও ৩২জিবি রমের পর এবার ৪জিবি র্যা ম এবং ৬৪জিবি রমের আরেকটি ভার্সনে এই স্মার্টফোনটি বাজারে এলো

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ নজরকাড়া ডিজাইনের নতুন স্মার্টফোন বাজারে নিয়ে এলো দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। বড় পর্দার এই স্মার্টফোনটির মডেল হলো ‘প্রিমো এনফোর’।

এলো ওয়ালটনের নতুন স্মার্টফোন ‘প্রিমো এনফোর’ 1

জানা গেছে, ৩জিবি র‌্যাম ও ৩২জিবি রমের পর এবার ৪জিবি র্যা ম এবং ৬৪জিবি রমের আরেকটি ভার্সনে এই স্মার্টফোনটি বাজারে এলো। পেছনে তিন ক্যামেরাযুক্ত সাশ্রয়ী মূল্যের এই স্মার্টফোনটির দুর্দান্ত সব ফিচার স্মার্টফোনপ্রেমীদের অসাধারণ অভিজ্ঞতা দেবে বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা যায়, ‘এনফোর’ মডেলের এই স্মার্টফোনে ব্যবহৃত হলো ৬.৫ ইঞ্চির ইন-সেল এইচডি প্লাস ১৯:৯ রেশিওর নচ আইপিএস ডিসপ্লে। পর্দার রেজ্যুলেশন হলো ১৬০০ বাই ৭২০ পিক্সেল। এতে রয়েছে ২.৫ডি কার্ভড গ্লাসও। আরও রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত স্মার্টফোনটির উচ্চগতি নিশ্চিত করতে ২.০ গিগাহার্জ গতির অক্টাকোর এআরএম কোর্টেক্স-এ৫৩ প্রসেসর।

এই নতুন স্মার্টফোনের পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ১৬, ৮ ও ২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল অটোফোকাস ক্যামেরা। ৬পি লেন্স সমৃদ্ধ ৮ মেগাপিক্সেলের সেকেন্ডারি ক্যামেরা দেবে ১২০ ডিগ্রি ওয়াইড অ্যাঙ্গেলে ছবি তোলার বিশেষ সুবিধা। অপরদিকে ২ মেগাপিক্সেলের তৃতীয় ক্যামেরা নিশ্চিত করবে ছবি ডেফথ অব ফিল্ড। দুর্দান্ত সেলফির জন্য এই স্মার্টফোনের সামনে রয়েছে পিডিএএফ প্রযুক্তির ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

নতুন এই স্মার্টফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। যে কারণে পাওয়া যাবে দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপ।

এতো কিছু সুযোগ সুবিধা থাকলেও দামের দিক দিয়ে খুবই সাশ্রয়ী এই নতুন স্মার্টফোনটি। ৪জিবি র‌্যাম ও ৬৪জিবি রমের নতুন এই স্মার্টফোনটির ভার্সনটি পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ১৩,১৯৯ টাকায়। অপরদিকে ৩জিবি র‌্যাম এবং ৩২জিবি রমের ভার্সনটির দাম মাত্র ১১,৬৯৯ টাকা।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...