The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৬৫ হাজার হতে এক লাখ টাকার মধ্যে জনপ্রিয় কয়েকটি মোটরসাইকেল

আগে মোটরসাইকেল মানে বোঝানো হতো বিলাস বহুল একটি বাহন। অথচ এখন আর তা নয়, বর্তমানে প্রায় সকলকেই বিভিন্ন প্রয়োজনে মোটরসাইকেল ব্যবহার করতে দেখা যায়

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বর্তমানে মোটরসাইকেল প্রায় অধিকাংশ মানুষের প্রিয় এবং সহজ পরিবহন মাধ্যম হিসেবে পরিচিত। আজ জেনে নিন এক লাখ টাকার মধ্যে জনপ্রিয় কয়েকটি মোটরসাইকেল সম্পর্কে।

আগে মোটরসাইকেল মানে বোঝানো হতো বিলাস বহুল একটি বাহন। অথচ এখন আর তা নয়, বর্তমানে প্রায় সকলকেই বিভিন্ন প্রয়োজনে মোটরসাইকেল ব্যবহার করতে দেখা যায়। যারা গ্রামে বিভিন্ন কারণে যাতায়াত করে থাকেন ও বিভিন্ন কাজে এদিক ওদিক ছুটাছুটি করে থাকেন তাদের কাছে মোটরসাইকেলের চাহিদা অনেক বেশি স্থান পেয়েছে। পূর্বে বিভিন্ন কারণে মোটরসাইকেলের দাম আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের তুলনায় অনেক বেশিই ছিলো। যে কারণে মোটরসাইকেল কিনতে আমাদের দেশের মানুষদের বেশ হিমশিম খেতে হতো । অনেকেই বেশি টাকা দিয়ে তাদের পছন্দের মোটরসাইকেল কিনতে পারতেনও না।

তবে বর্তমানে দিন পাল্টেছে। মোটরসাইকেলের দাম পূর্বের তুলনায় অনেকটাই কমে এসেছে এবং আমরা লক্ষ্য করলেই দেখতে পারি যে, যেখানে আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশে আমাদের দেশের তুলনায় প্রায় ৩ হতে ৪ গুন দাম বেশি ছিলো সেখানে এই ব্যবধানটা বর্তমানে অনেকাংশেই কমে এসেছে। আমরা এখন লাখ টাকার মধ্যে ভালো ফিচার সমৃদ্ধ মোটরসাইকেল পেতে পারি। বিভিন্ন কোম্পানী গ্রাহকদের সুবিধা ও সাধ্যের কথা মাথায় রেখেই মোটরসাইকেলের দাম কমিয়ে এনেছে। আবার সেইসব মোটরসাইকেল গুলোতে ভালো ভালো ফিচারও যোগ করেছে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের চাহিদাও বাড়ছে। আগে আমরা ৫০ সিসি বাইকের চাহিদা অনেক লক্ষ্য করতাম তবে এখন বেশির ভাগ মানুষের চাহিদা ১০০ বা ১৫০ সিসির বাইকের উপরেই দেখা যাচ্ছে। যে সকল বাইক বর্তমানে লাখ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে সেইগুলো সম্পর্কে আজকের এই প্রতিবেদন। আসুন এবার জেনে নেওয়া যাক।

রোডমাস্টার প্রাইম

রোডমাস্টার প্রাইম বাইকটির ইঞ্জিনে রয়েছে ৮৪.৪১ সিসির সিংগেল সিলিন্ডার ৪ স্ট্রোক ইঞ্জিন যা ৪.৫ কিলোওয়াট @ ৮০০০ আরপিএম ম্যাক্স পাওয়ার তৈরি করতে পারে। সেইসঙ্গে এর মাইলেজ ও টপ স্পীড কোম্পানিটি দাবি করে যে, ৬৫ কিমি প্রতি লিটারে মাইলেজ ৭০ কিমি প্রতি ঘন্টায় টপ স্পীডও দিতে সক্ষম। তাছাড়াও বাইকটিতে আধুনিক সব ফিচারও রয়েছে। এর বর্তমান দাম হলো ৬৪,৯০০ টাকা।

রানার ডিলাক্স

রানার ডিলাক্স এর ইঞ্জিনে রয়েছে ৮৫ সিসি সিংগেল সিলিন্ডার, ৪ স্ট্রোক ,এয়ার কুল্ড ইঞ্জিন। এই ইঞ্জিন ৪.৮ কিলোওয়াট @ ৭৫০০ আরপিএম ম্যাক্স পাওয়ার ও ৫.৭ এন এম @ ৬০০০ আরপিএম ম্যাক্স টর্ক উৎপন্ন করতে পারে। রানার দাবি করে যে, তাদের এই ইঞ্জিন প্রায় ৬০ কিমি প্রতি লিটারে মাইলেজ ও ৮০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় টপ স্পীডও দিতে সক্ষম। সব কিছু মিলিয়ে ৮০ সিসির বাইক হিসেবে এই বাইকটিতে বেশ কিছু আধুনিক ফিচারস রয়েছে। বর্তমানে এটির দাম ৮৩,০০০ টাকা।

রোডমাস্টার ডিলাইট

রোডমাস্টার ডিলাইট ১০০ সিসির বাইক হিসেবে খুব সুন্দর ও নজরকাড়া ডিজাইনও রয়েছে। ফুয়েল ট্যাংকারে সুন্দর গ্রাফিক্স, এলয় রিম, ডিস্ক ব্রেক সব কিছু মিলিয়ে বেশ আধুনিক একটি বাইকের ছোয়া রয়েছে বাইকটিতে। ইঞ্জিনের দিকটাও বলতে গেলে আধুনিক। রোডমাস্টার দাবি করে যে, তাদের এই বাইকটির মাইলেজ প্রায় ৬০ কিমি প্রতি লিটারে ও টপ স্পীড প্রায় ৮০ কিমি প্রতি ঘন্টায় দিবে। বাইকটির বর্তমানে দাম ৮৯,৯০০ টাকা ।

কীওয়ে ম্যাগনেট

কীওয়ে ম্যাগনেট মোটর সাইকেলটি সুন্দর গ্রাফিক্স, এলয় রিম এবং ৯৯.৭ সিসির ইঞ্জিন সমৃদ্ধ একটি বাইক বলা যায়। ১০০ সিসির বাইক হিসেবে এই বাইকটিতে অনেক সুন্দর সুন্দর ডিজাইন লক্ষ্য করা যায়। সেইসঙ্গে এর মাইলেজ ও টপ স্পীড খুব ভালো। কিওয়ে দাবি করেছে যে, তাদের এই বাইকটিতে মাইলেজ প্রায় ৬০ কিমি প্রতি লিটারে ও টপ স্পীড প্রায় ৯৫ কিমি প্রতি ঘণ্টায় পাওয়া যাবে। বাইকটির বর্তমানে মুল্য ৯২,৯০০ টাকা।

লিফান গ্লিন্ট ১০০

লিফান গ্লিন্ট আসলে ৯৯ সিসির ইঞ্জিন। যা ৫.৮ @ ৭৫০০ আরপিএম ম্যাক্স পাওয়ার ও ৭.৮ @ ৬৫০০ আর পি এম ম্যাক্স টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। সেইসঙ্গে এই ইঞ্জিন ৬৫ কিমি প্রতি লিটারে মাইলেজ ও ৯০ কিমি প্রতি ঘন্টায় টপ স্পীড সরবরাহ করতে পারে। বাইকটিতে বেশ ভালো ডিজাইন এবং গ্রাফিক্স লক্ষ্য করা যায়, বর্তমান এই বাইকটির দাম ৯৩,০০০ টাকা।

হিরো ডন ১০০

হিরো ডন বাইকটি দেখতে তেমন স্টাইলিশ না হলেও এর ইঞ্জিন পারফরমেন্স এবং অত্যন্ত মাইলেজ দুর্দান্ত। বাইকটিতে আধুনিক তেমন কোনো ফিচারস লক্ষ্য করা যায় না। শুধু এর সঙ্গে এলয় রিম সংযুক্ত রয়েছে। হিরো দাবি করেছে যে, তাদের এই বাইকটির মাইলেজ প্রায় ৬০ কিমি প্রতি লিটারে যা ১০০ সিসির বাইক হিসেবে খুব ভালো। এই বাইকটির বর্তমান দাম ৯৪,৯৯০ টাকা।

বাজাজ সিটি ১০০

আমাদের দেশে বিশেষ করে গ্রাম অঞ্চলে এই বাজাজ সিটি বাইকটি বেশি লক্ষ্য করা যায়। এর কারণ হলো এটির দুর্দান্ত মাইলেজ ও আরামদায়ক সিটিং পজিশনের কারণে অনেকেই এই বাইকটি পছন্দ করে থাকেন। প্রতিষ্ঠান দাবি করেছে যে, তাদের এই বাইকটির মাইলেজ হলো ৬৫ কিমি প্রতি লিটার। এই বাইকটির বর্তমান দাম ৯৫,৫০০ টাকা।

টিভিএস মেট্রো ১০০

১০০ সিসির বাইক হিসেবে টিভিএস মেট্রো দেখতে সুন্দর এবং অনেক ভালো মাইলেজ সমৃদ্ধ একটি বাইক। টিভিএস এস জনপ্রিয় একটি বাইকের মধ্যে এটিও একটি। টিভিএস দাবি করেছে যে, তাদের এই বাইকটি প্রায় ৭০ কিমি প্রতি লিটারে পাশাপাশি বাইকটি ভালো ইঞ্জিন পারফরমেন্স সরবরাহ করে থাকে। এই বাইকটির বর্তমান দাম ৯৫,৯০০ টাকা।

এইচ পাওয়ার জারা ১০০

১০০ সিসির বাইক হিসেবে এইচ পাওয়ার জারা এই বাইকটিতেও বেশ ভালো ডিজাইন লক্ষ্য করা যায়। এর মাইলেজ কোম্পানি দাবি করেছে যে, ৬০ কিমি প্রতি লিটার। এই বাইকটির বর্তমান দাম ৯৮,০০০ টাকা।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...