The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

যে কাজ করলে ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব!

প্রথমেই সব ধরনের সুগার বা চিনি খাওয়া ছেড়ে দিতে হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ রাশিয়ার মস্কোর ওশ স্টেট মেডিকেল ইউনিভার্সিটির ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ ডা. গুপ্তপ্রসাদ রেড্ডি (বি ভি) বলেছেন, ক্যান্সার প্রকৃতপক্ষে কোনো মরণব্যাধি নয়, তবে মানুষ এই রোগে মারা যায় শুধুমাত্র উদাসীনতার কারণে। তিনি মনে করেন, মাত্র দুটি উপায় অনুসরণ করলেই উধাও হয়ে যাবে ক্যান্সার।

যে কাজ করলে ক্যান্সার প্রতিরোধ করা সম্ভব! 1

উপায়গুলো হলো:

# প্রথমেই সব ধরনের সুগার বা চিনি খাওয়া ছেড়ে দিতে হবে। কেনোনা, শরীরে চিনি না পেলে ক্যান্সার সেলগুলো এমনিতেই প্রাকৃতিকভাবেই বিনাশ হয়ে যাবে।

# তারপর এক গ্লাস গরম পানিতে একটি লেবু চিপে তা মিশিয়ে নিন। টানা অন্তত ৩ মাস সকালে খাবারের আগে খালি পেটে এই লেবু মিশ্রিত গরম পানি পান করুন। তাতে উধাও হয়ে যাবে ক্যান্সার। মেরিল্যান্ড কলেজ অব মেডিসিন- এর একটি গবেষণায় বলা হয়, কেমোথেরাপির চেয়ে এটি হাজার হাজার গুণ ভালো।

# প্রতিদিন সকালে ও রাতে ৩ চা চামচ অর্গানিক নারিকেল তেল খান, এতে করে ক্যান্সার সেরে যাবে।

চিনি পরিহার ও অন্যকাজগুলোও যথারিতি করতে হবে। তাহলে ক্যান্সার আপনাকে ঘায়েল করতে পারবে না। তবে অবহেলা কিংবা উদাসীনতার কোনো অজুহাত এখানে নেই।

উল্লেখ্য যে, ক্যান্সার সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে ডা. গুপ্তপ্রসাদ গত ৫ বছর যাবত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে এই তথ্যটি প্রচার করে আসছেন। সেই সঙ্গে তিনি সকলকে অনুরোধ করেছেন এই তথ্যটি শেয়ার করে সবাইকে জানার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য।

তিনি বলেছেন যে, ‘আমি আমার কাজটি করছি। এখন আপনি শেয়ার করে আপনার কাজটি করুন ও আশেপাশের মানুষদের ক্যান্সার থেকে রক্ষা করুন।’

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...