The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এবার স্মার্টঘড়িতেই মাপা যাবে ডায়াবেটিস

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ এখন থেকে ডায়াবেটিস মাপার জন্য আপনাকে আর ঝামেলা করতে হবে না। কারণ এখন থেকে ঘরে বসেই খুব সহজেই স্মার্টঘড়িতেই মাপা যাবে ডায়াবেটিস!

এবার স্মার্টঘড়িতেই মাপা যাবে ডায়াবেটিস 1

অ্যাপল যখনই কোনো ওয়াচ বের করে তাতে কোনো না কোনো চমক থাকেই। এবারও অ্যাপল ওয়াচে রয়েছে চমক। কয়েক বছর ধরে অ্যাপল সেই চমক দিচ্ছে স্বাস্থ্যবিষয়ক সুবিধা যোগ করে। ইতিপূর্বে তারা হৃৎস্পন্দন মাপা, করোনা শনাক্তে রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা নির্ণয়, এমনকি ইসিজি করার মতো সুবিধাও দিয়েছে।

এবার অ্যাপলের স্মার্টঘড়িতে রক্তে গ্লুকোজ মাপার সুবিধাও যুক্ত হতে যাচ্ছে বলে এক প্রতিবেদনে জানা যায়। শুধু অ্যাপল ওয়াচই নয়, স্যামসাংয়ের নতুন গ্যালাক্সি ওয়াচেও এই সুবিধাটি থাকবে বলে বিভিন্ন প্রতিবেদন সূত্রে শোনা যাচ্ছে। দক্ষিণ কোরীয় সংবাদমাধ্যম ইটিনিউজের এক প্রতিবেদনে এমন সব তথ্য জানানো হয়েছে। তথ্যগুলো ঠিক হলে ডায়াবেটিস নির্ণয় একেবারেই সহজ হয়ে যাবে।

অপটিক্যাল সেন্সর ব্যবহার করে রক্তে গ্লুকোজ নির্ণয় করবে এই স্মার্টঘড়ি। এতে রক্ত বের করে মাপার প্রচলিত পদ্ধতির প্রয়োজনও হবে না। ‘রামান স্পেকট্রোস্কপি’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই কাজটি করা হবে বলে ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যই মূলত এই সুবিধাটি আনতে চলেছে অ্যাপল ও স্যামসাং। যে কারণে ব্যবহারকারীদের নিত্যদিন সুই দিয়ে আঙুলের ডগায় ফুটো করে রক্ত বের করে গ্লুকোজ মাপা লাগবে না। তবে প্রচলিত পদ্ধতির তুলনায় স্মার্টঘড়িতে গ্লুকোজ মাপা কতোটা নির্ভুল রিপোর্ট দেবে সেটিই দেখার বিষয়।

এ বছরের দ্বিতীয়ার্ধে স্যামসাংয়ের ‘গ্যালাক্সি ওয়াচ ৪’ বাজারে ছাড়ার কথা। স্মার্টঘড়িটি ‘গ্যালাক্সি ফোল্ড ৩’ মডেলের ভাঁজযোগ্য ডিসপ্লের স্মার্টফোনের সঙ্গেই ছাড়া হতে পারে বলে জানা গেছে। এদিকে ‘গ্যালাক্সি ওয়াচ অ্যাকটিভ ৩’ মডেলের আরেকটি স্মার্টঘড়িও বাজারে আসার কথা রয়েছে চলতি বছরই।

মাত্র কদিন আগে শেষ হওয়া কনজ্যুমার ইলেকট্রনিকস শো (সিইএস) মেলায় কোয়ান্টাম অপারেশন নামে এক জাপানি প্রতিষ্ঠান পরীক্ষামূলক একটি পরিধেয় যন্ত্র দেখিয়েছে, যেটি একই কাজ করতে পারবে বলে দাবি করা হয়। কোয়ান্টামের তৈরি যন্ত্রে খুদে স্পেকট্রোমিটারের সাহায্যেই রক্ত পরীক্ষা করার কথা ছিল। প্রতিষ্ঠানটির ভাষ্য মতে, ২০ সেকেন্ড স্ক্যান করলেই নির্ভুলভাবে রক্তে চিনি মাপা সম্ভব।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...