The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

৬ ঘণ্টা বন্ধ সম্পর্কে যা বললো ফেসবুক

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় সোসাল মিডিয়া ফেসবুক হঠাৎ করে বন্ধ থাকায় বিশ্বের কোটি কোটি গ্রাহকদের মধ্যে শঙ্কা দেখা দেয়। পরে অবশ্য আবার স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে ফেসবুক।

৬ ঘণ্টা বন্ধ সম্পর্কে যা বললো ফেসবুক 1

প্রায় ৬ ঘণ্টা অফলাইন হয়ে যাওয়ার পর পুনরায় চালু হয় ফেসবুক, মেসেঞ্জার, ইনস্টাগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ। পরিষেবাটির এই বিভ্রাট কেনো হলো তার ব্যাখ্যা দিয়েছে অ্যাপ ৩টির মালিকানা কোম্পানী ফেসবুক। মার্কিন সংবাদমাধ্যম এবিসি নিউজ এই নিয়ে প্রতিবেদনও করেছে।

ফেসবুক ওয়েবসাইটের প্রকৌশল পাতায় স্থানীয় সময় গতকাল (সোমবার) দেওয়া ব্যাখ্যার শুরুতে বলা হয়, ‘‘বিশ্বজুড়ে আমাদের ওপর নির্ভর করা বিপুল জনগোষ্ঠী এবং ব্যবসায় জড়িতদের কাছে আমরা অত্যন্ত দুঃখ প্রকাশ করছি। আমরা আমাদের সব অ্যাপ এবং সেবা পুনরায় চালু রাখতে কঠোর পরিশ্রমও করে যাচ্ছি। আমরা আনন্দের সঙ্গে জানাতে চাই, আমাদের অ্যাপস এবং সেবাগুলো আবারও অনলাইনে ফিরতে শুরু করেছে। আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

এই পরিষেবায় বিভ্রাটের ব্যাখ্যায় ফেসবুক বলেছে যে, ‘আমাদের প্রকৌশলী দল ইতিমধ্যেই জানতে পেরেছে, আমাদের ডাটা সেন্টারগুলোর মধ্যকার ট্রাফিক নেটওয়ার্কের সমন্বয়কারী শক্তিশালী রাউটারগুলোর কনফিগারেশন পরিবর্তন করা হয়েছে। যে কারণে অনিচ্ছা থাকার পরও যোগাযোগ ব্যাহত হওয়ার মতো কিছু ঘটনা ঘটেছে। ডাটা সেন্টারগুলোর মধ্যকার যোগাযোগপথে বাধা সৃষ্টি হয়। সে কারণে আমাদের পরিষেবাগুলো ব্যাহত হয়।’

ফেসবুকসহ অন্যান্য যোগাযোগমাধ্যম বন্ধ হওয়ার বিষয়ে ইন্টারনেটে নানা কথাবার্তা ছড়িয়ে পড়লেও ফেসবুক থেকে ব্যবহারকারীদের কোনো তথ্যই বেহাত হওয়ার প্রমাণ নেই বলে দাবি করেছে সামাজিক এই যোগাযোগ মাধ্যমটি।

এই বিষয়ে ফেসবুক বলেছে, ‘আমাদের সেবাগুলো বর্তমানে চালু (অনলাইন) রয়েছে এবং আমরা পুরোদমে সব ঠিকঠাক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার জন্য কাজ করছি। এই সময় আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই যে, আমরা বিশ্বাস করি, ভুলভাবে কনফিগারেশন পরিবর্তনের কারণেই এমনটি ঘটেছে। এই অফলাইন সময় ব্যবহারকারীর তথ্য বেহাত হওয়ার কোনো রকম প্রমাণ আমাদের হাতে নেই।’

উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সোমবার দুপুরে (বাংলাদেশে রাতে) প্রথম যখন অফলাইনের ঘটনা ঘটে, এবিসি নিউজকে ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বলেন যে, ‘আমাদের অ্যাপস এবং পণ্যগুলোতে ঢুকতে সমস্যায় পড়ছে। আমরা সেটিও জানি। যতো দ্রুত সম্ভব আমরা স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে ফিরে আসার চেষ্টা করছি। অসুবিধার জন্য আমরা সবার নিকট দুঃখ প্রকাশ করছি।’

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের কাপড়ের মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...