The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

redporn sex videos porn movies black cock girl in blue bikini blowjobs in pov and wanks off.

তৈরি হল পৃথিবীর প্রথম মানুষের মত দেখতে বায়োনিক মানুষ-রেক্স!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ বিজ্ঞানীরা এবার এমন এক রোবট তৈরি করেছে যে কিনা মানুষের মতোই প্রায় সব কাজ করতে পারে, শুনতে পারে, হাঁটে, বসে, দেখেও! এই রোবট তৈরি করতে বিজ্ঞানীদের ১ মিলিয়ন ডলার খরচ হয়েছে!


article-2269824-173811EF000005DC-562_634x519

এতদিন মানুষ সাইন্স ফিক্সান সিনেমা দেখে দেখে কত কিছুইনা কল্পনা করত! তৈরি হবে মানুষের মতোই দেখতে কোন রোবট যে নির্দেশ মত কাজ করে দিবে কিংবা শুনতে পাবে দেখতেও পাবে, এবার সেই কল্পনাকেই বাস্তবে রূপ দিয়েছে বিজ্ঞানীরা।

রেক্স নামের এই বায়োনিক মানুষের প্রায় সব কিছুই মানুষের মত, এর মানুষের মত অগ্ন্যাশয়, প্লীহা, বৃক্ক ও শ্বাসনালী রয়েছে। এমনকি এর একটি কার্যকরী কৃত্রিম রক্তসঞ্চালন প্রণালীও আছে।

রেক্স তৈরির প্রথম ধারনা আসে জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানী বারটোল্ট মেয়ারের কৃত্রিম বায়োনিক হাত দেখে। রেক্সের প্রতিষ্ঠাতা বিজ্ঞানীরা প্রথম দেখেন বারটোল্ট মেয়ারের একটি হাত নেই এবং তিনি ঐ হাতের জায়গায় একটি বায়োনিক হাত ব্যাবহার করছেন তাই দিয়েই নিজের প্রয়োজনীয় অনেক কাজ অনায়েসে করে যাচ্ছেন! ফলে বিজ্ঞানীরা নিজেরা ভাবেন একটি হাত যদি তৈরি করা যায় তবে সম্পূর্ণ শরীর সহ একটি মানুষ কেন তৈরি করা যাবেনা? সেই অনুপ্রেরণা থেকেই শুরু। হাত দেয়া হল পৃথিবীর প্রথম বায়োনিক মানুষ তৈরির কাজে। রেক্স তৈরির পর এর মুখে যে মানুষের অবয়ব দেয়া হয়েছে সেটিও মনোবিজ্ঞানী বারটোল্ট মেয়ারের।

ছবিতে মনোবিজ্ঞানী বারটোল্ট মেয়ার নিজের মত দেখতে রেক্স'কে দেখছেন।
ছবিতে মনোবিজ্ঞানী বারটোল্ট মেয়ার নিজের মত দেখতে রেক্স’কে দেখছেন।

রেক্স তৈরির সম্পূর্ণ কাজ করা হয় ব্রিটিশ চ্যানেল ফোর এর রোবট গবেষণা ধর্মী অনুষ্ঠান ‘হাউ টু বিল্ড এ বায়োনিক ম্যান’ শীর্ষক রোবট গবেষণা ধর্মী অনুষ্ঠানে। সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হচ্ছে এই যন্ত্র মানবের শরীরের বিভিন্ন যন্ত্র তৈরিতে গবেষণা করেছেন বিশ্বের ১৮টি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এবং ব্যবসায়িক উৎপাদন কেন্দ্র। সকলের অসাধারণ পরিশ্রমে তৈরি বায়োনিক মানুষ রেক্স।

article-2269824-1739E543000005DC-280_634x1202

কৃত্রিম মানুষ অর্থাৎ রোবট তৈরিতে অনেকের নানান দ্বিমত রয়েছে, যেখানে বর্তমানে বিশ্ব জুড়ে কর্মক্ষম মানুষে মাঝে একটি বিশাল সংখ্যার মানুষ বেকার জীবন যাপন করছেন সেখানে এভাবে রোবট তৈরি করে পুঁজিবাদের আরেক ধাপ ছোবল দেয়া কতটা যুক্তিযুক্ত তা নিয়েও বিস্তর ভাবনার অবকাশ রয়েছে।

এদিকে বোস্টন ইউনিভারসিটির প্রফেসর জর্জ আয়ানাস বলেন, বর্তমানে যে হারে শক্তিশালী কৃত্রিম অঙ্গ তৈরি হচ্ছে এবং তা সুস্থ মানুষ নিজেদের শক্তিশালী করতে স্বাভাবিক অঙ্গের বদলে শরীরে প্রতিস্থাপন করছেন এটি সমাজে এক সময় অরাজকতা ডেকে আনতে পারে, যা শুভ লক্ষণ নয়।

বিজ্ঞানীদের অবশ্য রেক্স তৈরির পেছনে রয়েছে অন্য উদ্দেশ্য বিশেষ করে পৃথিবী জুড়ে অসংখ্য মানুষ নানান কারনে তাদের পা, হাত সহ শরীরের নানান অঙ্গ হারাচ্ছেন। আর রেক্স সম্পূর্ণ কৃত্রিম অঙ্গের দ্বারা তৈরি একটি কৃত্রিম মানুষ ফলে ভবিষ্যতে অঙ্গ হারানো মানুষের কৃত্রিম অঙ্গ প্রতিস্থাপনে তৈরি হল নতুন সম্ভাবনা।

রেক্স এখনো কৃত্রিম মানব তৈরি গবেষণার প্রাথমিক পর্যায় বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা সামনে এর আরো উন্নয়ন করা হবে। আর আমরা সাধারণ মানুষরাও দেখার অপেক্ষায় রইলাম বিজ্ঞান প্রকৃতির কতোটা কাছাকাছি যেতে পারে।

চলুন নিচের ভিডিও’তে এক পলক দেখেনিই প্রথম বায়োনিক মানুষ রেক্স’কেঃ

ধন্যবাদান্তেঃ Daily mail

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...
sex không che
mms desi
wwwxxx