পৃথিবীর বিচিত্র সব অদ্ভুত আইন!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অন্যসব বিষয়ে ভিন্নতা থাকলেও আইনের ক্ষেত্রে প্রায় মিল দেখা যায়। কিন্তু তারপরও এক এক দেশে এক এক ধরনের ব্যতিক্রমি আইন প্রচলিত রয়েছে। দেশ-বিদেশে এমন কিছু আইন আছে যেগুলো বিশেষজ্ঞরা শনাক্ত করেছে অদ্ভুত আইন হিসেবে।


law1

কলোরাডো : যৌক্তিক কোন কারণ না দেখিয়ে বৃষ্টির পানি সংগ্রহ করা এক ধরনের চুরি। এটি প্রতারণা অথবা ছিনতাইয়ের পর্যায়ে পড়ে বলে এই দেশের আইনে রয়েছে।

হংকং : স্ত্রী পরকীয়া করলে স্বামী তাকে খুন করতে পারে। তবে শর্ত একটাই আর তা হলো খুন করতে হবে খালি হাতে।

ইলিনয়িস : শীতকালে কোন বাচ্চা জমে থাকা তুষার দিয়ে স্নো বল বানিয়ে গাছের দিকে ছুঁড়তে পারবে না।

কলাম্বিয়া : মেয়ের বাসর রাতে তার মার উপস্থিতি বাধ্যতামূলক।

গুয়াম (আমেরিকা) : কোন কুমারী মেয়ে বিয়ে করতে পারে না। অঙ্গরাজ্যটিতে কিছু পেশাদার পুরুস আছে যারা অর্থের বিনিময়ে কুমারীত্বের অভিশাপ মোচন করে। পরে তাদের দেয়া সনদ মোতাবেকই বিবাহ সম্পন্ন হয়।

ইংল্যান্ড : পার্লামেন্টে মৃত্যুবরণ করা বেআইনি।

ফ্রান্স : শুকরের নাম নেপোলিয়ন রাখা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

ইন্ডিয়ানা: রোববার গাড়ি বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয়।

জাপান: কোন মেয়েকে প্রণয়ের প্রস্তাব দিলে আইন অনুসারে মেয়েটি না করতে পারবে না।

আরকানসাস : মাসে একবার বউ পেটানো যাবে। এটাই আইন। দুইবার পেটালেই সাজা।

নেভাদা : বউ পেটানো ধরা পড়লে আইন অনুসারে তাকে আট ঘণ্টা বেঁধে রাখা হবে। তার বুকের মধ্যে একটা পোস্টার সেঁটে দেয়া হবে, ওয়াইফ বিটার বা বাংলায় ‘বিশিষ্ট বউ পেটানো বিশেষজ্ঞ’ বলা যায়।

থাইল্যান্ড : ত্রিশ বছরের বেশি বয়সী অবিবাহিত মহিলারা দেশের সম্পত্তি হিসেবে গণ্য হবে।

সামাও : নিজের বউয়ের জন্মদিন ভুলে যাওয়া বেআইনি।

অ্যারিজোনা : সাবান চুরিতে ধরা পড়লে তার শাস্তি হল- ওই সাবান দিয়েই নিজেকে ধুতে থাকবে যতক্ষণ না সাবান পুরো শেষ হয়।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...