ব্যাঘ্রমন্দির: মানুষের সঙ্গে বাঘের বন্ধুত্বের কাহিনী

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ থাইল্যান্ডের ব্যাঘ্রমন্দির। এখানে গড়ে উঠেছে মানুষের সঙ্গে বাঘের বন্ধুত্ব। যা কল্পনা করাও কঠিন। কিন্তু এক বাস্তবতা রয়েছে এই বাঘ ও মানুষের বন্ধুত্বের কাহিনীতে।

tiger people friendship

থাইল্যান্ডের ভাষায় বলা হয়, ওয়াত পা লুয়াং তা বুয়া বা ব্যাঘ্রমন্দির। থাইল্যান্ডের কাঞ্চনবুড়ি প্রদেশের এক বৌদ্ধ মন্দিরে স্বাধীনভাবে বসবাস করছে রয়েল বেঙ্গল টাইগার। মন্দিরের ভিক্ষুসহ সেখানকার দর্শনার্থী ও পর্যটকরাও ইচ্ছে মতো এসব হিংস্র প্রাণীর সঙ্গে খাতির জমাতে পারেন। যাদের সাহস রয়েছে তারা এসব বাঘের সঙ্গে মুলাকাতও করেন। হয়তো এমন কথা শুনে আপনাদের বিশ্বাস হচ্ছে না। তবে দেখুন সেসব ছবি। ছবি দেখলে বুঝতে পারবেন এসব হিংস্র পশু মানুষের সঙ্গে কিভাবে বন্ধুত্ব গড়ে তুলেছেন। শতাধিক বাঘ রয়েছে এখানে। এগুলোর দেখভাল করেন ওই মন্দিরের ভিক্ষু।

লুয়াংতা মাহাবুয়া বুদ্ধমন্দির কম্পাউন্ডে কিছুদিন আগে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ কর্মকর্তারা অভিযান চালিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে তারা কোনো অপরাধ সেখানে খুঁজে পাননি। এখানে বাঘগুলোকে অত্যন্ত আদরযত্মে রাখা হয়েছে। অনেকটা পোষা বিড়ালের মতো। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ কর্মকর্তারা সেখানে গিয়ে তো হতবাক। একি কাণ্ড মানুষের সঙ্গে হিংস্র পশুদের এমন ভাব হতে পারে?

দেখুন সেসব দুর্লভ ছবি:
tiger people friendship-2
tiger people friendship-3
tiger people friendship-4
tiger people friendship-5
tiger people friendship-6
tiger people friendship-7

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...