মোজাম্বিকে পাওয়া অংশটিই মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানের?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ মোজাম্বিকে পাওয়া অংশটিই মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানের? এমন মন্তব্য করেছেন অস্ট্রেলীয় বিশেষজ্ঞরা। আসলেও কী তাই?

Mozambique & missing plane

সংবাদ মাধ্যমকে অস্ট্রেলীয় বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, মোজাম্বিকে বিমানের যে দু’টি ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে তা যে নিখোঁজ মালয়েশীয়ান বিমানেরই, সেটি প্রায় নিশ্চিত। অস্ট্রেলিয়ার পরিবহনমন্ত্রী ড্যারেন চেস্টারও একই কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ধ্বংসাবশেষগুলো পরীক্ষার পর বিশেষজ্ঞরা এগুলোকে নিখোঁজ মালয়েশিয়ার বিমানের বলেই মনে করছেন।

মনে করা হচ্ছে সাগরের ঢেউ এই ধ্বংসাবশেষগুলো মোজাম্বিকে নিয়ে গেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, পরীক্ষা করে দেখা গেছে ধ্বংসাবশেষগুলো বোয়িং ৭৭৭ এয়ারক্রাফটেরই, যারা ওই নিখোঁজ বিমানটির নির্মাতা।

এক বিবৃতিতে ড্যারেন চেস্টার বলেছেন, বিশ্লেষণে এটি প্রায় নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, ওই ধ্বংসাবশেষগুলো এমএইচ৩৭০ বিমানটিরই। চেস্টার আরও বলেন, অনুসন্ধান দল তাদের কাজ অব্যাহত রাখবে। সাগরের আরও ২৫ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকায় অনুসন্ধান চালানো বাকি আছে। তিনি বলেন, আমরা আমাদের কাজ সম্পন্ন করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। বিমানটি খুঁজে পাওয়ার ব্যাপারে আমরা এখনও আশাবাদী।

উল্লেখ্য, ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে মোজাম্বিকে একটি ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়া যায়। অপরদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার একটি পরিবার গত বছর ডিসেম্বরে আফ্রিকার পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় বেড়াতে গিয়ে বিমানের একটি ধ্বংসাবশেষ দেখতে পান। খবর পেয়ে অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল হতে ধ্বংসাবশেষটি উদ্ধার করে। তখন থেকেই অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষ বলেছিল, ধ্বংসাবশেষটি হয়তো বোয়িং ৭৭৭-এর।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...