ব্রেকিং নিউজ: গ্রেফতারকৃত সাংবাদিক শফিক রেহমান ৫ দিনের রিমান্ডে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণের চক্রান্ত মামলায় সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

journalist Shafik Rehman 5-day remand

আজ (শনিবার) সকাল সাড়ে ৭টায় রাজধানীর ইস্কাটনের বাসা হতে বিএনপিঘনিষ্ঠ এই সাংবাদিককে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়া হয়।

শফিক রেহমানের স্ত্রী তালেয়া রেহমানের অভিযোগ পাওয়ার পর এই বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্মকমিশনার কৃষ্ণপদ রায় সকাল ১০টার দিকে বলেছিলেন, “বিষয়টি আমার জানা নেই।”

এর ঠিক আধা ঘণ্টা পর ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মারুফ হোসেন সরদার বলেন, “২০১৫ সালের অগাস্ট মাসের পল্টন থানার একটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় শফিক রেহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।”

এরপর দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কে ‘অপহরণের চক্রান্তে’ এফবি আইকে ঘুষ দেওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপির অপর এক নেতার ছেলের দণ্ডের ঘটনায় বাংলাদেশ পুলিশ যে মামলা করেছিল, সেই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে শফিক রেহমানকে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মারুফ সরদার বলেন, “২০১৩ সালে শফিক রেহমান বিদেশ গিয়েছিলেন। তখন এই ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে তার যোগাযোগও হয়েছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।”

শফিক রেহমানকে গ্রেফতারের পর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়। দুপুরের পর পাঠানো হয় ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির সহকারী কমিশনার হাসান আরাফাত ৭ দিন রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। এরপর শুনানি নিয়ে মহানগর হাকিম মাজহারুল ইসলাম ৫ দিন রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন।

এদিকে শফিক রেহমানকে নিয়ে যাওয়ার বর্ণনা দিয়ে তার স্ত্রী তালেয়া রেহমান বলেন, ‘ডিবি পরিচয়ে কয়েকজন লোক বাসায় ঢুকে বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে যেতে হবে’ এভাবে তাকে নিয়ে যায় তারা।’

উল্লেখ্য, প্রখ্যাত অধ্যাপক সাইদুর রহমানের ছেলে শফিক রেহমান। শফিক রেহমানের স্ত্রী তালেয়া রেহমান নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থা ডেমোক্রেসি ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...