৫০০ টাকা নিয়ে পাশ করিয়ে দিন: কারণ সামনেই বিয়ে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ সামনেই বিয়ে তাই ৫০০ টাকা নিয়ে পাশ করিয়ে দেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন এক ছাত্রী। খাতার ভাঁজে ৫০০ টাকার নোট গুঁজে দিয়ে তলায় লিখেছে- বিয়ের কথা হচ্ছে স্যার, এই ৫০০ টাকা নিন। আর পাশটুকু করিয়ে দিন।

500 and pass exam

ঘুষের ব্যবহার পৃথিবীতে কমবেশী সব যায়গায় থাকলেও এবারের ঘটনাটি একেবারেই ব্যতিক্রমি ঘটনা।

ক্লাস টেনের শিক্ষার্থী তার পরীক্ষার খাতার ভাঁজে ৫০০ টাকার নোট গুঁজে দিয়ে তলায় লিখেছেন- ‘বিয়ের কথা হচ্ছে স্যার, এই ৫০০ টাকা নিন। আর পাশটুকু করিয়ে দিন।’

অভিনব এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। উত্তরপ্রদেশের বস্তি জেলায় দশম শ্রেণী ও ইন্টারের পরীক্ষার খাতা দেখার কাজ চলছিল জিজিআইসি ইন্টার কলেজে। কনৌজের বাঙ্কেলাল বিহারি ইন্টার কলেজের দশম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের খাতা দেখছিলেন এক পরীক্ষক।

সেইসব খাতা দেখতে দেখতে চক্ষু ছানাবড়া হওয়ার জোগাড় হলো তার। উত্তরপত্রে ভুলভাল লেখা। কেও কেও তো পাশ করানোর আর্জি জানিয়ে রীতিমতো টাকা সেঁটে দিয়েছে ওই খাতার ভাঁজে! পাশ করানোর আর্জির পাশাপাশি আশ্চর্যরকমের কারণ দেখিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

একজন লিখেছে- সে খুব গরিব, তাই তাকে যেনো দয়া করে পাশ করিয়ে দেন গুরুজি। আবার কারোর খাতায় লেখা-টুকলি লিখে দেওয়ার জন্য হাজার তিনেক টাকা জোগাড় করে একব্যক্তিকে দিয়েছিল। তবে হলে কড়া গার্ড থাকায় টুকলি করতে পারেনি সে। জলে গেছে তার পুরো টাকা। তাই তাকে যেনো দয়া করে পাশ করিয়ে দেওয়া হয়।

আবার কেও লিখেছে-পাশ করিয়ে দিন স্যার, আপনার শতায়ু হোক। খাতায় টাকা সেটে দিয়ে পরিষ্কার লিখে দিয়েছে একজন- বিয়ের কথা হচ্ছে স্যার। ৫০০ টাকা নিয়ে পাশ করিয়ে দিন।এমন আজব সব কাণ্ড কারখানা দেখেশুনে পরীক্ষক হাসবেন না কাঁদবেন বুঝে উঠতে পারছেন না!

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...