স্কটল্যান্ডের মুসলিম নারী পুলিশের জন্য হিজাব পরিকল্পনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ স্কটল্যান্ডে পুলিশ বাহিনীতে যোগদানে মুসলমান নারীদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য ভিন্ন রকম পরিকল্পনা নিয়েছে স্কটল্যান্ড সরকার। দেশটিতে পুলিশ বাহিনীর উর্দির ঐচ্ছিক অংশ হিসেবে হিজাব যুক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

Muslim women's hijab plan for Scotland

এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নির্দিষ্ট নকশার হিজাব নিয়ে কাজ কাজ শুরু করেছে দেশটির পুলিশ বাহিনী। এই হিজাব মাথা ও গলা ঢেকে রাখবে। তবে মুখ উন্মুক্ত রাখবে।

অবশ্য বর্তমানেই স্কটল্যান্ডের মুসলিম নারী পুলিশ সদস্যরা চাইলেই হিজাব পরতে পারেন। সেজন্য জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তার অনুমতি গ্রহণ করতে হয়।

স্কটল্যান্ডের পুলিশ বাহিনী চায়, সেখানে আরও এশীয় ও কৃষ্ণাঙ্গ মানুষ যুক্ত হোক। অবশ্য এই লক্ষ্যে লন্ডন শহরের পুলিশ ১০ বছর আগেই হিজাব পরার অনুমতি দেয়।

স্কটল্যান্ডের পুলিশের হিসাব অনুযায়ী, কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ১২৭ প্রার্থী ২০১৫-১৬ বর্ষে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেওয়ার আবেদন করেছে। মোট আগ্রহী প্রার্থীর আড়াই শতাংশ এই সংখ্যাটি।

স্কটল্যান্ডের আইন অনুযায়ী পুলিশ বাহিনী ৪ শতাংশ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ অন্তর্ভুক্ত করতে মাত্র ৬৫০ জন সদস্য প্রয়োজন।

সংবাদ মাধ্যমকে স্কটল্যান্ড পুলিশের চিফ ইন্সপেক্টর অ্যানা বেল বলেছেন, চলতি বছর স্কটল্যান্ড পুলিশ বাহিনীর নারী পুলিশ যোগ দেওয়ার ১০১তম বার্ষিকী। বাহিনীতে আরও নারীদের অংশগ্রহণ চাওয়া হচ্ছে। সেক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর একটি উপায় হলো হিজাব পরার অধিকার দেওয়া।

তাই স্কটল্যান্ড পুলিশ বাহিনীর পক্ষ হতে বলা হয়, হিজাব পরিধানের অনুমতি দেওয়া হলে সেটি উর্দিরই অংশ হবে। আর এটি বাস্তবায়িত হলে এশীয় ও কৃষ্ণাঙ্গ প্রার্থীদের বাধা অনেকটা দূর হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...