দেশে মোবাইল গ্রাহক প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি: ইন্টারনেট গ্রাহক প্রায় ৬ কোটি!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দিন যতেো গড়াচ্ছে ততোই ইন্টারনেট ব্যবহারের সংখ্যা বাড়ছে। একদিকে মোবাইল গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে, অপরদিকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যাও বাড়ছে।

approximately 6 million Internet subscribers

দেশে মোট ৬টি মোবাইল ফোন অপারেটরের গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ১৩ কোটি ২৬ লাখ ৪৯ হাজার। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ৩৩ লাখ ১৬ হাজারের মতো। যার মধ্যে আবার মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫ কোটি ৯৮ লাখ।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) গতকাল (রবিবার,২৬ জুন) সর্বশেষ মে মাসের মোবাইল গ্রাহক ও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর এই পরিসংখ্যানটি প্রকাশ করেছে।

গত এপ্রিলে মোবাইল গ্রাহক সংখ্যা ছিল ১৩ কোটি ১৯ লাখ ৪৯ হাজার। অপরদিকে ইন্টারনেট গ্রাহক ছিল ৬ কোটি ২০ লাখ ৪ হাজার। এই দুই মাসের তথ্যে দেখা যায় যে, মোবাইল ও ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বেশ বেড়েছে।

সর্বশেষ মে মাসের তথ্যে শীর্ষ অপারেটর গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ৭৩ লাখ ৯৩ হাজার। পূর্বের মাসে অর্থাৎ এপ্রিলে ছিল ৫ কোটি ৬৯ লাখ ৫০ হাজার।

আর বাংলালিংকের সর্বশেষ মে মাসের গ্রাহক সংখ্যা হলো ৩ কোটি ২২ লাখ ৩১ হাজার। এপ্রিলে ছিল ৩ কোটি ২১ লাখ ৪৮ হাজার।

অপরদিকে রবির মে মাসের গ্রাহক সংখ্যা ছিল ২ কোটি ৭৭ লাখ ৩ হাজার, তার আগের মাসে এপ্রিলে ছিল ২ কোটি ৭৬ লাখ ১৪ হাজার।

মোবাইল অপারেটর এয়ারটেলের গ্রাহক সংখ্যা মে মাসের হিসেবে ১ কোটি ১ লাখ ২৫ হাজার। পূর্বে এপ্রিলে ছিল ১ কোটি ১ লাখ ৩ হাজার।

মোবাইল অপারেটর সিটিসেলের বর্তমান গ্রাহক সংখ্যা ৭ লাখ ৩৫ হাজার। অথচ পূর্বে ছিল ৭ লাখ ৬৮ হাজার। অর্থাৎ সিটিসেলের গ্রাহক সংখ্যা আরও কমেছে।

এদিকে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটকের এপ্রিলের পরিসংখ্যানের গ্রাহক সংখ্যা ৪৪ লাখ ৬৩ হজার। এর আগের মাসে ছিল ৪৩ লাখ ৬৫ হাজার।

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বরে বায়োমেট্রিক পদ্ধতি তথা আঙুলের ছাপ পদ্ধতিতে মোবাইল সংযোগ রি-ভেরিফিকেশনের পর সর্বশেষ মে মাস নাগাদ ১১ কোটি ৬০ লাখ সিম নিবন্ধিত হয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী।

বায়োমেট্রিকের সময় গ্রাহক সংখ্যা তিন মাস কমতে থাকলেও এপ্রিল মাসে এসে তা আবার বাড়তে শুরু করে।

ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে:

মে মাসের তথ্য অনুযায়ী, দেশে মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ৩৩ লাখ ১৬ হাজার। এপ্রিলে এটি ছিল ৬ কোটি ২০ লাখ ৪ হাজার।

এইসব ইন্টারনেট গ্রাহকের মধ্যে মোবাইল ইন্টারনেট ৫ কোটি ৯৮ লাখ ২৯ হাজার। এটি এপ্রিলে ছিল ৫ কোটি ৮৬ লাখ ৬১ হাজার।

অপরদিকে ওয়াইম্যাক্স গ্রাহক গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে ১ লাখ ১৮ হাজার থাকলেও পূর্বের মাসে তা ছিল ১ লাখ ২৪ হাজার। অর্থাৎ গ্রাহক সংখ্যা কমেছে।

সংবাদ মাধ্যম বলেছে, আইএসপি ও পিএসটিএন গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে ৩৩ লাখ ৭০ হাজার। এর আগের মাসে ছিল ৩২ লাখ ১৯ হাজার। সব মিলিয়ে দেখা যাচ্ছে মোবাইল গ্রাহক বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যাও বাড়ছে। স্মার্টফোন সহজলভ্য ও মোবাইল অপারেটরা স্বল্পমূল্যে নেট দেওয়ায় গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে বলে মনে করা হচ্ছে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...