The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

জর্জিনা নামে এক মহিলা নিজের রক্ত নিজেই পান করেন!

জর্জিনা কন্ডন রক্ত পান করেন ঠিকই কিন্তু তিনি কখনও ভ্যাম্পায়ার কিংবা পৈশাচিক কোনো কিছুর সঙ্গে নিজের তুলনা করেন না

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ভ্যাম্পায়ারের কথা আমরা অনেকেই জানি। তবে বেশির ভাগ ঘটনা আমরা সিনেমাতে দেখেছি। ভ্যাম্পায়ার অর্থ রক্ত খাদকদের যে বাস্তবে দেখা যাবে তা কখনও ভাবিনি। অস্ট্রেলিয়ার এক মহিলা নিজের রক্ত নিজেই পান করেন!

জর্জিনা নামে এক মহিলা নিজের রক্ত নিজেই পান করেন! 1

তাই অস্ট্রেলিয়ার জর্জিনা কন্ডন নামের ওই মহিলাকে এ যুগের ভ্যাম্পায়ার বলা যায়। এই মহিলা নতুন জীবন লাভের উদ্দেশ্যে নিজের রক্ত নিজেই পান করেন!

জর্জিনা কন্ডন রক্ত পান করেন ঠিকই কিন্তু তিনি কখনও ভ্যাম্পায়ার কিংবা পৈশাচিক কোনো কিছুর সঙ্গে নিজের তুলনা করেন না। নিজেকে দেবী বলতেই বেশি ভালো লাগে জর্জিনার। যখন তিনি থাকেন তার দৈব সত্বায়, তখন তার নাম হয় গডেস এসথার। এই দেবীকে বলা হয়ে থাকে নবজীবনের দেবী। জর্জিনা কন্ডনের এই নিজ রক্তপান ঘটনাটির সঙ্গে নতুন জীবন লাভের একটা সাদৃশ্য রয়েছে বলে দাবি করা হয়।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ বলা হয়, জর্জিনা খুব ছোটবেলা হতেই রক্তল্পতায় ভোগেন! যে কারণে নিজের রক্ত পান করে মানসিক শান্তি পান জর্জিনা। একদম অল্প বয়স হতেই নিজের রক্ত পান করে চলেছেন জর্জিনা। কখনও সূচ দিয়ে শিরা হতে রক্ত তুলে নেন, আবার কখনও নিজেকে আহত করে রক্ত পান করেন তিনি।

তবে একটি বিষয় হলো সবসময় চাইলেও যে তিনি রক্ত পান করতে পারেন, এমনটা নয়। কারণ রক্তল্পতার অন্যতম লক্ষণ শরীরে রক্তের অভাব দেখা দেওয়া। জর্জিনা যখন গথিক আন্ডারগ্রাউন্ড ক্লাবে যান, তখন অনেকেই নাকি তাকে নিজেদের রক্ত উৎসর্গ করতে চেয়েছেন তার এই ঘটনা জানার পর। জর্জিনা নিজেই জানিয়েছেন সেই কথা। তবে আজ পর্যন্ত অন্য কারও রক্ত পান করেননি জর্জিনা।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...