চালকের হার্ট অ্যাটাকের আগেই জানাবে ‘গাড়ি’!

‘অ্যালার্ম গাড়ি’ তৈরি করতে চলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ গাড়ি চালানো অবস্থায় চালকের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা দেখা দিলে তা আগে থেকেই জানাবে ‘গাড়ি’! জাপানি গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টয়োটার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এমনই ‘অ্যালার্ম গাড়ি’ তৈরি করতে চলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা।

এবার এমনই এক গাড়ি আসছে, যা চালকের হৃদরোগের কোনো লক্ষণ দেখা দিলে তা আগে থেকেই জানিয়ে দেবে। জাপানি গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টয়োটার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এমনই একটি ‘অ্যালার্ম গাড়ি’ তৈরি করতে চলেছে যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানীরা।

গাড়ি চালানো অবস্থায় চালক যদি কখনও হঠাৎ করে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েন, তবে চালকের থেকেই সবচেয়ে বেশি বিপদে পড়বেন গাড়ির যাত্রীরা। এতেকরে ঘটতে পারে বড় ধরণের হতাহতের ঘটনা।

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক কাব্যন নাজারিয়ান বলেছেন, গাড়ি চালানোর সময় চালক অসুস্থ হয়ে পড়ায় প্রচুর দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। এই রকমের অসুস্থতার মধ্যে মাইয়োকার্ডিয়াল ইনফ্র্যাকশন এবং মাইয়োকার্ডিয়াল ইসকিমিয়ার মতো হৃদরোগও রয়েছে।

এ রকম সমস্যা হতে মুক্তি পেতেই এই রকম অভিনব প্রযুক্তি উদ্ভাবন করতে চলেছেন ওই বিজ্ঞানীরা। এই প্রযুক্তি চালকের শারীরিক পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে আসন্ন হৃদরোগের আশঙ্কার পূর্বাভাস জানিয়ে দিতে সক্ষম। চালকের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত হাসপাতালের তথ্য ও গাড়ি চালানো অবস্থায় তার শারীরিক পরিবর্তন যাচাই করে সেই আগত বিপদ সম্পর্কে আগাম সতর্ক করতে পারবে এই যন্ত্রটি।

বিষয়টি খুব সহজ নয় বলেও জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁরা বলেছেন, লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে কিছু বাধা অতিক্রম করতেই হবে। গাড়িতে হাসপাতালের মতো অত্যাধুনিক সংবেদনশীল যন্ত্রও বসানো অসম্ভব। এছাড়া গাড়ি চলাকালীন বিবিধ শব্দ এড়িয়ে চালকের তাৎক্ষণিক ইসিজি করা খুবই মুশকিল। তার ওপর এই রিপোর্টের উপরেও ভরসা করা প্রায় অসম্ভব। তবে গাড়িতে বসানো যন্ত্রের সাহায্যে হার্ট মনিটরের সাহায্যে চালকের হৃদযন্ত্রের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে পারবে। আলোচিত এই প্রযুক্তি পণ্যকে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের অনুমোদন পেতে হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...