বডি ল্যাঙ্গুয়েজ: জেনে নিন সঠিক প্রয়োগ

পেশাগত জীবনে বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আপনার ব্যক্তিত্বের উপর আপনার বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বা শরীরি ভাষার একটি বড়ো প্রভাব রয়েছে। বডি ল্যাঙ্গুয়েজের মাধ্যমে আপনি সহজেই আরেকজন ব্যক্তির মনে আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা তৈরি করতে পারেন।

মূলত মুখের ভাষার মাধ্যমে আমরা মনের ভাব প্রকাশ করলেও আমাদের শরীরি ভাষার মাধ্যমেও অনেক ভাব ব্যক্ত হয়। আপনার বডি ল্যাঙ্গুয়েজ সঠিক হলে অনেক ক্ষেত্রেই আপনি সাফল্য অর্জন করতে পারবেন। বিশেষত পেশাগত জীবনে বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আসুন তাহলে শরীরি ভাষার সঠিক প্রয়োগ সম্পর্ক জেনে নেওয়া যাক-

চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলুন

যার সাথে কথা বলবেন তার চোখের দিকে তাকানো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হিসেবে প্রমাণ করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই বিষয়টি মেনে চলতে হবে। তবে কারো চোখের দিকে একনাগাড়ে বেশিক্ষণ তাকিয়ে থাকবেন না।

ঘাড় স্বাভবিক রাখুন

নার্ভাস হয়ে পড়লে সাধারণত আমাদের ঘাড় একটু উঁচু হয়ে সামনের দিকে ঝুঁকে যায়। বিষয়টি যে কারো চোখে আপনার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা তৈরি করতে পারে। তাই কারো সাথে কথা বলার সময় ঘাড় স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করুন। প্রয়োজনে মাঝে মাঝে ঘাড়ে সামান্য ঝাঁকুনি দিয়ে নিতে পারেন।

আস্তে হাঁটুন

কোনো ব্যক্তি অতি দ্রুত হাঁটলে তাকে স্বাভাবিকভাবেই ভীত বা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত বলে মনে হয়। তাই একান্ত প্রয়োজন না হলে কখনোই দ্রুত হাঁটবেন না।

কারো শরীর ঘেঁষে দাঁড়াবেন না

কারো সাথে কথা বলার সময় কখনোই তার শরীর ঘেঁষে দাঁড়াবেন না। এতে অনেকে অস্বতিবোধ করতে পারে। অনেকে বিষয়টিকে অভদ্রতা হিসেবেও দেখে।

হাতের ইশারা ব্যবহার করুন

কথা বলার সময় সঠিকভাবে হাত নাড়ানোর অভ্যাস করুন। এতে করে শ্রোতার কাছে আপনার বক্তব্যকে আরও বেশি আকর্ষণীয় হবে। তবে মনে রাখতে হবে যে, অধিক মাত্রায় হাত নাড়ানো ঠিক নয়।

কথার সময় মুখে হাত দেবেন না

কথা বলার সময় মুখে হাত দেবার অভ্যাস থাকলে তা ত্যাগ করুন। এটি একটি বদঅভ্যাস, যার কারণে আপনার ভদ্রতাজ্ঞান সম্পর্কে মানুষের মনে সন্দেহ হতে পারে।

Advertisements
Loading...