গিনিস বুকের সেই লম্বা নারীর গল্প! [ভিডিও]

সম্প্রতি এই রাশিয়ান মডেল গিনিস বুকে নাম লেখিয়েছেন

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ একজন নারী কতোটা লম্বা হতে পারেন? ৫ ফুট বা সাড়ে ৫ কিংবা খুব বেশি হলে ৬ ফুট। হয়তো এই নারীকে দেখলে আপনার সেই ধারণাটি পাল্টে যাবে। আজ রয়েছে গিনিস বুকের সেই লম্বা নারীর গল্প! দেখুন ভিডিওটি তাহলেই বুঝবেন।

এই পৃথিবীতে কত রকম বিচিত্র ঘটনায় না ঘটছে প্রতিদিন। এইসব ঘটনার সঙ্গে কোনো না কোনো মানুষ সম্পৃক্ত। আজ রয়েছে গিনেস বুক অব রেকর্ডে অধিভুক্ত এক লম্বা নারীর গল্প।

সম্প্রতি এই রাশিয়ান মডেল গিনিস বুকে নাম লেখিয়েছেন। এই নারীর নাম একাতেরিনা লিসিনা। তিনি সৌন্দর্য, চুল, মুখ, ঠোঁট, স্টাইল এসরের কোনো কিছুর জন্যই এই রেকর্ড গড়েননি। তিনি রেকর্ড গড়েছেন সবচেয়ে লম্বা পা হওয়ার জন্য। গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।

শুনতে অনেকটা আশ্চর্য মনে হলেও আসলেও সত্যি। রাশিয়ান মডেল একাতেরিনার পা কতোটা লম্বা, সেটা শুনলে সত্যিই অবাক হবেন! একাতেরিনার উচ্চতা ৬ ফিট ৯ ইঞ্চি! সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এরমধ্যে তার পায়ের উচ্চতা হলো ১৩৩ সে:মি:;যা প্রায় ৪.৩৬ ফিট!

গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের তথ্য মতে, তার বাঁ পায়ের উচ্চতা ৫২.২ ইঞ্চি এবং ডান পায়ের উচ্চতা ৫২ ইঞ্চি।

সংবাদ মাধ্যমের খবরে জানা গেছে, একাতেরিনা লিসিনা থাকেন পশ্চিম রাশিয়ার পেনজায়। তিনি ১৬ বছর বয়স হতেই মডেল হতে চাইতেন। তবে বাস্কেটবল খেলোয়াড় হিসেবে তিনি তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। তার উচ্চতার জন্য বাস্কেটবল প্রতিযোগিতায় তিনি বাড়তি সুবিধাও পেতেন। ২০০৮ সালে বেজিং অলিম্পিকে তিনি রাশিয়াকে ব্রোঞ্জ পদক এনে দেন। অবশ্য একাতেরিনা লিসিনা পরে আসেন মডেলিং জগতে।

জানা যায়, একাতেরিনা গত ৭ সেপ্টেম্বর তার নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে একটি ছবিও শেয়ার করেন। গিনেস বুক খেতাব জয়ের পর রাশিয়ান এই মডেল লেখেন, এই দিনটির জন্য সে জানুয়ারি হতে অপেক্ষা করছিলেন।

ওই সময় (জানুয়ারি) তিনি এই খেতাবের জন্য আবেদন করেন। একাতেরিনা জানিয়েছেন, মডেলিংয়ে আরও ভালো করতে চান তিনি। গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম তোলার বিষয়টি তার কাছে অনেক গর্বের বিষয়।

শুধু যে তার পা লম্বা, এমনটিও নয়। একাতেরিনা লিসিনার পায়ের পাতার দৈর্ঘ্যও অনেকখানি লম্বা! তার পায়ে লাগে ৪৭ ইউরোপিয়ান সাইজের জুতো!

একাতেরিনা লিসিনা নিজে স্বীকার করেছেন যে, এই বড় সাইজের জুতো পেতে তার প্রায়ই সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়। এজন্য আমেরিকার ১৪ সাইজের পুরুষদের জুতো ব্যবহার করেছেন একাতেরিনা লিসিনা।

একাতেরিনা লিসিনান এই বড় পায়ের জন্য গাড়িতে চড়তেও বেশ সমস্যা হয়। তিনি একমাত্র ২০০৯ নিশান মুরানো গাড়িতে চড়তেই স্বাচ্ছ্বন্দ্যবোধ করেন। শুধু তাই নয়, তার বিমানে চলাফেরা করতেও বেশ সমস্যায় পড়তে হয়েছে। তবুও তিনি খুশি তার এই লম্বা পায়ের জন্য এবং গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠার জন্য।

দেখুন ভিডিওটি

Advertisements
Loading...