টাচস্ক্রিন ব্যবহারে শিশুদের দূরে রাখা জরুরি

বাচ্চারা একজন প্রাপ্তবয়ষ্ক মানুষের থেকেও অনেক বেশি প্রযুক্তিতে আসক্ত হয়ে পড়ছে

Toddler touching father's cell phone

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ বর্তমান যুগে টাচস্ক্রিন ব্যবহারের মাত্রা বাড়ছে। আজকাল শিশুরাও এই টাচস্ক্রিন ব্যবহারে অভ্যস্ত হয়ে পড়ছে। কিন্তু গবেষকরা বলেছেন, টাচস্ক্রিন ব্যবহারের কারণে শিশুদের পেনসিল ধরার প্রবণতা কমে আসছে।

বিষয়টি অনেকের কাছেই শুনতে আশ্চর্য লাগতে পারে, কিন্তু বাস্তবতা হলো এটিই সত্যি। বর্তমান সময়ে বাচ্চারা একজন প্রাপ্তবয়ষ্ক মানুষের থেকেও অনেক বেশি প্রযুক্তিতে আসক্ত হয়ে পড়ছে। আমাদের দেশে এখনও এমন বহু মানুষ রয়েছে, যারা ভালো করে স্মার্টফোন ব্যবহার করতেই পারেন না। তবে একটা বাচ্চাকে স্মার্টফোন হাতে ধরিয়ে দিলে, দেখা যাবে কিছু না শিখেও গড়গড় করে ব্যবহার করতে পারছে টাচস্ক্রিন।

আবার দেখা যাচ্ছে বাবা-মায়েরা বাচ্চাদের ব্যস্ত রাখা কিংবা খাওয়ানোর জন্য নিজের স্মার্টফোন বাচ্চাদের হাতে ধরিয়ে দিচ্ছেন। যে কারণে সময়ে-অসময়ে তারা স্মার্টফোনে আসক্ত হয়ে পড়ছে।

এ বিষয়ে গবেষকরা জানিয়েছেন, অতিরিক্ত পরিমাণে টাচস্ক্রিন স্মার্টফোন, ট্যাবলেট বা ভিডিও গেমের ব্যবহার শিশুদের মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। যে কারণে আপনার বাচ্চাটি পেনসিল বা কলম ধরতেও ক্রমশ অক্ষম হয়ে পড়বে।

চিকিৎসকদের মতে, টাচস্ক্রিন ফোন বা ট্যাবলেট ব্যবহার করার সময় বাচ্চাদের আঙুলের পেশি সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে বাধা সৃষ্টি হয়। সে কারণে আঙুলের জোর বাড়ে না। তাই তারা যখন পেনসিল ধরতে যায়, তখন আঙুলে জোর পায় না। আঙুল সঠিকভাবে নড়াচড়াও করে না।

ইংল্যান্ড ফাউন্ডেশন এনএইচএস ট্রাস্টের প্রধান পেডিয়াট্রিক থেরাপিস্ট স্যালি পাইন জানিয়েছেন, বাচ্চাদের ঠিক করে পেনসিল ধরার জন্য আঙুলের পেশির জোর প্রয়োজন এবং পেশি সঠিকভাবে চলাচল করাও দরকার। যা ক্রমশ কমে যাচ্ছে টাচস্ক্রিন ব্যবহারের কারণে। ঠিক মতো পেনসিল না ধরতে পারার কারণে হাতের লেখাও খারাপ হচ্ছে। যার ফলস্বরূপ পরীক্ষায় নম্বরও কম পাচ্ছে বাচ্চারা। তাই বাচ্চাদের পড়াশোনার জন্য তাদের হাতে টাচস্ক্রিন মোবাইল বা ট্যাবলেট দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। যতোদূর সম্ভব এইসব প্রযুক্তি হতে তাদের দূরে রাখতে হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...