১৬ কোটি টাকা মূল্যের এই গাড়িতে এমন কী রয়েছে?

কার্লমন কিং নামে এই গাড়িই নাকি বিশ্বের সবথেকে দামি স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ দাম শুনে যে কেওই ভাবতে পারেন যে, এমন কীই বা রয়েছে এই গাড়িটিতে যে তার মূল্য ১৬ কোটি টাকা! বিষয়টি জানতে হলে লেখাটি পড়তে হবে।

নিজেরা ব্যবহার না করলেও আমরা পত্র-পত্রিকায় বহু নামিদামি গাড়ি মাঝে মধ্যেই দেখে থাকি। আজও রয়েছে এমন একটি গাড়ির গল্প, যে গাড়ির দাম ১৬ কোটি টাকা! কী রয়েছে ওই ১৬ কোটি টাকার গাড়িটিতে? কার্লমন কিং নামে এই গাড়িই নাকি বিশ্বের সবথেকে দামি স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল। ডায়মন্ড কাট শেপের এই গাড়িটির দাম ও অন্যান্য ফিচার দেখে নিন এক নজরে।

কার্লমন কিং গাড়িটির নামের সঙ্গে সঙ্গে ওজনেও বেশ ভারি। ৬ টন ওজনের এই গাড়ি যে কেও কিনতে পারবেন না। মাত্র ১২টি এমন গাড়ি বানিয়েছে নির্মাতা সংস্থাটি। যে কারণে মাত্র ১২ জনই কিনতে পারবেন এই গাড়ি।

প্রয়োজন মতো সম্পূর্ণ কাস্টমাইজ করাতে পারবেন এই গাড়ি। সামনের চেহারা দেখলে বেশ শক্তপোক্ত মনে হয় এই গাড়িকে। এই গাড়িটির ভেতরে রয়েছে ৪ জনের বসার জায়গা। সামনের দিকে রয়েছে কোম্পানির লোগো।

আবার বাইরের চেহারার মতো গাড়ির ভেতরও বেশ চমকদার। এই গাড়ির ভেতরে রয়েছে আরামদায়ক সিট, হাইফাই সাউন্ড, প্রাইভেট সেফ, ফোন এবং রেফ্রিজারেটরও! এতে রয়েছে কফি মেশিন ও প্লেস্টেশন ৪।

জানা গেছে, সম্পূর্ণ বুলেটপ্রুফ এই এসইউভি ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রাতেও সচল থাকবে। ফোর্ড এফ ৫০০ মডেলের ওপর গাড়িটি কাস্টমাইজ করেছে চীনের একটি কোম্পানি।

এই গাড়ির এসইউভিতে রয়েছে ৬ দশমিক ৮ লিটার ভি টেন ইঞ্জিন। এর থেকে পাওয়া যায় ৪০০ হর্সপাওয়ার ক্ষমতা। সর্বোচ্চ ১৪০ কিলোমিটার বেগে ছুটে চলতে সক্ষম এই গাড়ি। বাংলাদেশী মুদ্রায় গাড়িটির মূল্য হলো প্রায় ১৬ কোটি টাকার মতো।

Advertisements
Loading...