ভিডিও চোর ধরতে ইউটিউব নিয়ে আসছে ‘কপিরাইট ম্যাচ টুল’

ভিডিও চোরগুলো খুব সহজে অন্যের ভিডিও ডাউনলোড করে নিজের চ্যানেলে আপলোড করছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ পৃথিবীতে অনেক ধরনের জিনিস প্রতিনিয়ত চুরি হচ্ছে। আর এই চুরির হাত থেকে ইউটিউবও রক্ষা পায়নি। ইউটিউবে প্রতিনিয়ত প্রচুর ভিডিও চুরি হচ্ছে। তবে মজার বিষয় হচ্ছে এই চোরগুলো আবার সেই ভিডিও গুলো ইউটিউবেই সেই চোরদের চ্যানেলে আপলোড করছে। ফলে ভিডিওগুলোর প্রকৃত মালিকেরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। কারণ একজন ব্যক্তি অনেক কষ্ট করে ভিডিও তৈরি করে ইউটিউবে আপলোড করছে। অথচ ভিডিও চোরগুলো খুব সহজে সেই ভিডিও ডাউনলোড করে নিজের চ্যানেলে আপলোড করছে।

ইউটিউব এবার এই ভিডিও চোরদের ধরতে কপিরাইট ম্যাচ টুল নামে একটি নতুন ফিচার নিয়ে আসছে যে টুলসের মাধ্যমে ইউটিউব খুব সহজেই সেই ভিডিও চোরদের ধরতে পারবে। ইউটিউবের একটি ব্লগ পোষ্টে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন এই টুলের মাধ্যমে ইউটিউবে কোন নতুন ভিডিও আপলোড করা হলে তা স্ক্যান করে দেখবে ইউটিউব। এতে আপলোড করা ভিডিওর সঙ্গে ইউটিউব প্ল্যাটফর্মে অন্য কোন চ্যানেলে আপলোড করা কোনো ভিডিওর সামঞ্জস্য আছে কি না, তা বিশ্লেষণ করে দেখা হবে।

যদি ওই ভিডিও অন্য চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিওর সাথে মিলে যায়, তবে ‘ম্যাচেস’ নামের একটি ট্যাব হাজির হবে। এই ট্যাবের মাধ্যমে ইউটিউব সেই চুরি ভিডিও আপলোড নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে। ইউটিউব কর্তৃপক্ষের ভাষ্যমতে, অবৈধভাবে কনটেন্ট পুনরায় আপলোড ঠেকাতে এক বছর ধরেই কপিরাইট ম্যাচ টুলটি নিয়ে পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। এই টুলটিকে অধিক নিরাপদ, কার্যকর ও পুরো কমিউনিটির উপযোগী করে তুলতে দীর্ঘদিন ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছে।

আগে আপলোড করা কোনো ভিডিওর সঙ্গে যদি নতুন আপলোড করা কোন ভিডিও মিলে যায়, সেক্ষেত্রে প্রকৃত আপলোডকারী নতুন আপলোডকারীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন বা ইউটিউবকে ওই ভিডিও সরিয়ে ফেলার অনুরোধ করতে পারবেন। এছাড়া আরও জানানো হয়েছে, ইউটিউবে যাঁদের এক লাখের বেশি সাবস্ক্রাইবার আছে, তাঁরা আগামী সপ্তাহ থেকে নতুন ফিচারটি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে ফিচারটির আরো কিছু ডিভিলপ করে শিগ্রই তা সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...