The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

এবার বাংলায় পথ চেনাবে গুগল!

গুগল ম্যাপস অ্যাপে বাংলা সেবা চালু করা হয়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সুবাদে আমরা অনেক দূর এগিয়ে যাচ্ছি। গুগলের মাধ্যমে আমরা অনেক কিছুই জানতে পারি। পথচেনাতে গুগলের জুড়ি নেই। তবে এবার বাংলায় পথ চেনাবে গুগল!

এবার বাংলায় পথ চেনাবে গুগল! 1

ধরুন আপনি মোটর সাইকেল কিনেছেন। ঢাকা শহর ঘুরে দেখার জন্য সেই শখের মোটর সাইকেল নিয়ে রাস্তায় নামলেন। অথচ পুরান ঢাকার অলিগলির ঠিকানা আপনার ভালো করে জানাও নেই। তাতে চিন্তা কি? ‘গুগল ম্যাপস’ আপনার পাশে থাকছে। তবে এবার গুগল ম্যাপ আসছে বাংলা ভাষা নিয়ে। আপনাকে পথ দেখিয়ে নিয়ে যাবে গন্তব্যে। যাত্রার আগেই গুগল ম্যাপস অ্যাপটি আপনাকে চালু করতে হবে। গন্তব্য লিখে দিলেই জানতে পারবেন কতোটা সময় নেবে নির্দিষ্ট স্থানে যেতে। সেইসঙ্গে রাইড চলাকালে আপনি শুনতে পাবেন বাংলায় পথ নির্দেশনাও। ইতিমধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশে এই সেবাটি চালু করেছে টেক জায়ান্ট গুগল।

গুগল বাংলাদেশ লোকাল গাইড মডারেটর মাহবুব হাসান জানিয়েছেন যে, গত কয়েকবছরে বাংলাদেশে ম্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক গুণ বেড়েছে। রাইড শেয়ারিং বা অন্য কোনো কারণে হোক ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়াটা ভাবিয়ে তুলেছে গুগলকে। তাই গুগল ম্যাপস অ্যাপে বাংলা সেবা চালু করে এই প্রতিষ্ঠানটি।

মাহবুব হাসান আরও জানিয়েছেন, ‘গোটা বিশ্বেই আঞ্চলিক ভাষাগুলোর দিকে বেশি করে নজর দিতে শুরু করেছে গুগল। তারই ধারাবাহিকতায় গত তিন বছরে ৮৮টি নতুন ভাষা যুক্ত হয়েছে গুগলের পরিষেবাতে।’

মাহবুব হাসান আরও জানিয়েছেন, দেশের অনেক মানুষ গুগল ম্যাপস ব্যবহার করলেও ইংরেজি ভাষার কারণে অনেক কিছুই তাদের বুঝতে অসুবিধা হতো। তাই মাতৃভাষায় অ্যাপটি আপডেট করার বিষয়টিও মাথায় রেখেছিল গুগল।

‘‘বাংলা সুবিধা পেতে অ্যাপ হতে ভাষা হিসেবে ‘বাংলা’ সিলেক্ট (নির্বাচন) করতে হবে। সেলফোনের ভাষাতেও ‘বাংলা’ নির্বাচন করলেও এই সেবাটি পাওয়া সম্ভব,” বলে জানিয়েছেন মাহবুব হাসান।

শুধু এখানেই শেষ নয়। অ্যাপে নিরাপত্তা ফিচার ‘স্টে সেফার’র সংযুক্ত করেছে গুগল। ভারতের পর বাংলাদেশের ব্যবহারকারীরা এই সুবিধাটি পাচ্ছেন। মাহবুব হাসান বলেছেন, এই ফিচারের মধ্যদিয়ে ব্যবহারকারী তার অবস্থান সম্পর্কে পরিবার পরিজন বা কাঙ্খিত ব্যক্তির সঙ্গে শেয়ার করে রাখতে পারবেন।

আবার যাওয়ার পথে গাড়ি যদি নির্ধারিত পথ ছেড়ে ৫শ’ মিটার দূরে চলে যায়, তখনই সেলফোন অ্যালার্ম দেওয়া শুরু করে দেবে। অ্যালার্মের তীব্রতা ধাপে ধাপে বাড়তে থাকবে, যেনো ব্যবহারকারী বুঝতে পারেন তিনি আসলে ভুল পথে এগুচ্ছেন।

গুগল বাংলাদেশ লোকাল গাইড মডারেটর আরও বলেছেন, ৫শ’ মিটারের আগে সেলফোন কোনো সংকেতই দেবে না। কারণ হলো গুগল তার অ্যালগরিদম ব্যবহারের মাধ্যমে বিকল্প রাস্তা খুঁজে দেখবে। তিনি আরও জানান, ‘কোনো বিকল্প রাস্তা না পাওয়া গেলে, ব্যবহারকারীকে যেমন সংকেত দেওয়া হবে, ঠিক তেমনি কাঙ্খিত ব্যক্তির কাছেও তাৎক্ষণিক নোটিফিকেশন চলে যাবে।’

তবে এই সুবিধাটি আপাতত অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা পাচ্ছেন। আইফোন ব্যবহারকারীদের আরও মাস ছয়েক অপেক্ষায় থাকতে হতে পারে বলে জানিয়েছেন মাহবুব হাসান। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন যে, আইফোনের কোনো অফিসিয়াল সাপোর্ট বাংলাদেশে নেই তাই।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...