The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

উইঘুর মুসলিম নির্যাতন নিয়ে চীনের কড়া সমালোচনা করলেন ট্রুডো

চীন-কানাডা কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০তম বার্ষিকীতে গত মঙ্গলবার হংকংয়ে দমননীতি ও উইঘুর মুসলিমদের আটকে রাখার কঠোর সমালোচনা

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ চীনে উইঘুর মসলিম নিয়ে সমালোচনা রয়েছে দীর্ঘদিন ধরেই। এবার উইঘুর মুসলিম নির্যাতনের বিষয়ে চীনের কঠোর সমালোচনা করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

উইঘুর মুসলিম নির্যাতন নিয়ে চীনের কড়া সমালোচনা করলেন ট্রুডো 1

চীন-কানাডা কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০তম বার্ষিকীতে গত মঙ্গলবার হংকংয়ে দমননীতি ও উইঘুর মুসলিমদের আটকে রাখার কঠোর সমালোচনা করেন তিনি।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রুডো আরও বলেন, চীনের মানবাধিকার রেকর্ড নিয়ে কানাডার উদ্বেগ রয়েছে আগে থেকেই। হংকং এবং জিনজিয়াংয়ের উইঘুর মুসলিমদের বিষয়ে চীনানীতি নিয়ে অটোয়া উদ্বিগ্ন। বেইজিংয়ের দৃষ্টিভঙ্গি তার নিজের বা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কারও জন্যই মোটেও ইতিবাচক নয়।

এই বিষয়ে জাস্টিন ট্রুডো বলেন, চীন বিশ্বের অন্য দেশের নাগরিকদের সঙ্গে দুই কানাডিয়ান নাগরিককেও বিনাবিচারে আটকে রেখেছে। এই বিষয়ে কানাডা মিত্রদের সঙ্গে কাজ করবে।

উল্লেখ্য যে, কানাডার সঙ্গে চীনের সম্পর্কের ব্যাপক অবনতি ঘটে ২০১৮ সালে। ওই বছরের ডিসেম্বরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে চীনা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সিএফও মেং ওয়ানজৌকে গ্রেফতার করেছিলো অটোয়া।

পশ্চিমা দেশগুলোর অভিযোগ হলো, হুয়াওয়ে তার ব্যবহারকারীদের সকল তথ্য চীনের কমিউনিস্ট পার্টির হাতে তুলে দেয়। তাছাড়াও মেং ওয়ানজৌয়ের বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইরানবিরোধী নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করার অভিযোগও রয়েছে।

কানাডায় তিনি গ্রেফতার হওয়ার পর চীনে অবস্থানরত দুই কানাডীয় নাগরিককে গ্রেফতার করে বেইজিং। পরে তাদের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয়েছে।

তাদের মধ্যে একজনকে গত আগস্ট মাসে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে চীনা আদালত। বিষয়টি নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কের ব্যাপক অবনতিও ঘটে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

Loading...