The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

মাস্ক ও হেলমেট একের মধ্যে দুই সুবিধা!

হল ল্যাবস নামে এক মার্কিন স্টার্টআপ ফেস মাস্কের বিকল্প হিসেবে ‘এয়ার বাই মাইক্রোক্লাইমেট’ নামে নতুন হেলমেট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ছেড়েছে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ যে কেও এটি দেখে আশ্চর্য হতে পারেন। কারণ সত্যিই এক ব্যতিক্রমি হেলমেট এটি। আসলে এটি কী মাস্ক? নাকি হেলমেট? এমনই এক নতুন প্রযুক্তির খবর রয়েছে আজ।

মাস্ক ও হেলমেট একের মধ্যে দুই সুবিধা! 1

হল ল্যাবস নামে এক মার্কিন স্টার্টআপ ফেস মাস্কের বিকল্প হিসেবে ‘এয়ার বাই মাইক্রোক্লাইমেট’ নামে নতুন হেলমেট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ছেড়েছে। এটি মূলত গলার চারপাশে আটকে থাকে। মুখের সামনের দিকটায় রয়েছে স্বচ্ছ অ্যাক্রেলিকের আচ্ছাদন। সবচেয়ে বড় কথা হলো, মাথায় ওই হেলমেট পরে ঘর ছেড়ে বেরোলে মনে হতে পারে যেনো পৃথিবীর নয়, মঙ্গলের কোনো অফিসে বা মহাশূন্যে পাড়ি জমানোর প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে! তবে এর দামটাও কম নয়, ১৯৯ মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশে টাকায় প্রায় ১৭ হাজার টাকার মতো।

এই হেলমেটে বাতাস চলাচলের ব্যবস্থাও করা হয়েছে ফ্যানের সাহায্যে। হেলমেটটির ধারণা প্রথম মাইকেল হলের মাথাতেই আসে। তিনি হলেন ল্যাবসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। একদিন তিনি সপরিবারে গেছেন স্কি করতে। তবে স্কি মাস্ক ও গগলসে ঢাকা পড়ে যাওয়ায় সন্তানের মুখ দেখতে পাচ্ছিলেন না তিনি। তখনই মাথার চারপাশে ‘মাইক্রোক্লাইমেট’ অর্থাৎ বাইরের পরিবেশ হতে পৃথক পরিবেশ তৈরির চিন্তা মাথায় ঢোকে তার। তারপর করোনা মহামারি শুরু হলে হেলমেট তৈরি শুরু করেন হল ল্যাবস। ফ্যানের সাহায্যে হেলমেটের ভেতর বাতাস চলাচলের ব্যবস্থাও রয়েছে। চার্জযোগ্য ব্যাটারির সাহায্যে ফ্যানগুলো চলে। এর এইচইপিএ ফিল্টার ০ দশমিক ৩ মাইক্রোনের ৯৯ দশমিক ৯৭ শতাংশ কণা আটকাতে পারে বলেও দাবি প্রতিষ্ঠানটির।

অবশ্য মার্কিন পত্রিকা ‘দ্য নিউইয়র্ক টাইমস’-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয় যে, হেলমেটটি দেখতে ‘কুল’ ও উচ্চপ্রযুক্তির মনে হলেও ফেস মাস্কের চেয়ে খুব বেশি সুরক্ষা দেয় না- এমন কথায় বলা হয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...