যারা ধূমপান পরিত্যাগ করতে চান তাদের জন্য কিছু পরামর্শ

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক॥ ধূমপান করা অনেক সহজ কিন্তু একবার ধূমপানে নেশা গ্রস্থ হয়ে গেলে তা ত্যাগ করা অনেক কঠিন। আমরা আজ আপনাদের সেই কঠিন কাজটি করার বিষয়েই কিছু ধারণা দিব।


smoking-kills

আপনি যদি ধূমপায়ী হন তবে আপনি যখন ধূমপান করেন তখন ধূমপানের ফলে আপনার শরীরে নিকোটিনের প্রভাবে নানান সমস্যা তৈরি হয়। কিন্তু আপনি যদি ধূমপানের পর ৩০ মিনিট কোন ধূমপান না করেন তবে এসময়ের মাঝে আপনার শরীর আপনার রক্ত চাপ এবং আপনার ফুসফুস ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে থাকে। ৮ ঘন্টা পর আপনার শরীরের রক্ত চাপ সম্পূর্ণ স্বাভাবিক হয়ে যায় এবং আপনার রক্তে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ আবার শুরু হয়। সুতরাং আপনি যদি ধূমপান পরিহার করেন তবে মাত্র ৮ ঘন্টার মাঝেই আপনি এসব সুফল পেতে পারেন আপনি যদি সম্পূর্ণ রুপে ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ করেন তবে আপনার হৃদ রোগ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক অংশে কমে যায় এবং আপনার শরীরে ফুসফুসে যে কয়লা জমে তাও ধীরে ধীরে আপসারিত হয়ে যায়। মহান সৃষ্টিকর্তা আমাদের শরীরে এমন ব্যবস্থা রেখেছেন প্রাথমিক ভাবে আমাদের শরীর নিজে থেকেই এর ছোট খাট সমস্যা সমাধান করে নিতে পারে প্রয়োজন কেবল ইচ্ছা শক্তি।

আপনি যদি ধূমপায়ী হন তবে প্রতিবার ধূমপানের ফলে প্রতিটি সিগারেট আপনার শরীরে যে পরিমাণ ক্ষতি করে তা আপনি কল্পনা করতে পারবেন না। আপনি হয়ত না জেনেই নেশার তাড়নায় ধূমপান করে যাচ্ছেন। ইদানীং বড় বড় অভিনেতারাও অনেকেই ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছেন ঠিক ভাবে খবর নিলে দেখা যাবে তাদের ক্যান্সারের পেছনে মূল কারণ ধূমপান! বিশ্বে যে পরিমাণ ক্যান্সারের রোগী পাওয়া যাচ্ছে তাঁর বেশীর ভাগ হচ্ছে নেশা এবং নেশা জাতীয় দ্রব্যের প্রতি আসক্তির কারণেই।

চলুন এবার সিগারেট আপনার কি পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি করছে তা জেনে নেইঃ

ভাল ব্রেন্ডের এক প্যাকেট সিগারেটের মূল্য যদি ১১০ টাক হয় এবং আপনি যদি দৈনিক এক প্যাকেট সিগারেট সেবন করে থাকেন তবে মাসে আপনার সিগারেটের পেছনেই কেবল খরচ হবে ৩,৩০০ টাকা বছরে আপনি সিগারেটের পেছনে ব্যয় করবেন ৩৯,৬০০ টাকা। আপনি যদি প্রতিদিন ২ প্যাকেট সিগারেট না খান তবে আপনি বছরে প্রায় ৮০,০০০ টাকা সাস্রয় করতে পারবেন যা দিয়ে আপনি অনেক দরকারি কাজ করে নিতে পারতেন।

ধূমপান ত্যাগের ফলে আপনি আরও যেসকল সুবিধা পাবেনঃ

১। আপনার মানসিক জোর বাড়বে।

২। ধূমপান না করলে আপনাকে আরও যুবক দেখাবে।

৩। আপনার উৎপাদন ক্ষমতা বাড়বে।

৪। আপনার মুখে হাসি এবং মন ফ্রেস থাকবে।

৫। আপনার দৃষ্টি শক্তি ভালো থাকবে।

৬। আপনার সন্তান এবং পরিবার সিগারেটের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থেকে মুক্ত থাকবে।

সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে সিগারেট একটি ক্ষতিকর নেশা এতে অভস্থ হয়ে যাওয়া মানে একটা ক্ষতিকর জিনিসে অভস্থ হওয়া। অতএব যা আপনার শরীরের জন্য খারাপ তা অবশ্যই পরিত্যাজ্য। যাকিছু ভালো তাঁর সাথেই থাকুন সুস্থ থাকুন।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...