The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

লক্ষ ডলার আয় করা যায় এমন দশটি প্রযুক্তি বিষয়ক কাজ!

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ বর্তমান যুগ হচ্ছে প্রযুক্তির যুগ, এখন সারা বিশ্ব জুড়ে প্রযুক্তি বিষয়ক কাজ জানা জনশক্তির ব্যাপক চাহিদা। আর এই চাহিদাকে কাজে লাগিয়ে আমাদের মত স্বল্প উন্নত দেশের মানুষ নিজেদের অবস্থাকে আরও উন্নত করে নিতে পারে।


TopSkillsTechJobs00

প্রযুক্তি বিষয়ক বিদ্যা জানা থাকলে বর্তমানে কাজের অভাব হয়না। নিজ নিজ দেশে তো বটেই আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজের দুয়ার সব সময় খোলা। সম্প্রতি Dice.com এর করা এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে কোন কাজ সমূহ সবচেয়ে বেশি আয় করে পৃথিবীর এমন একটি জরিপ।

Dice.com এর তথ্য অনুযায়ী সারা বিশ্ব জুড়ে প্রযুক্তি খাতে সবচেয়ে বেশি দামী দক্ষতা হচ্ছে প্রোগ্রামিং এবং ডাটা এন্ট্রি দক্ষতা! এসব সেক্টরের কিছু কিছু কাজের দাম এতোই বেশি যে যেখানে গড় আয় বছরে এক লাখ ডলারের বেশি বা ৭৭ লাখ টাকা!

এদিকে Dice.com প্রেসিডেন্ট Shravan Goli বলেন আমাদের এই বিশ্লেষণ প্রতিবেদন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে চায় এমন মানুষদের সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে। প্রযুক্তি খাতে কোন কাজের কতটা দাম তাই এখানে উঠে এসেছে।”

জরিপে উঠে আসা সবচেয়ে বেশি আয় করে প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ “R” নিয়ে যারা কাজ করে তারা। R পরিসংখ্যান বিষয়ক একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এটি সারা বিশ্ব ব্যাপি জনপ্রিয়। ফলে এই ভাষা নিয়ে যারা কাজ করেন তাদের কাজের মূল্য সবচেয়ে বেশি! এরা সারা বিশ্ব জুড়ে বছরে গড়ে ১ লাখ ১৫ হাজার ডলারের ও বেশি আয় করে যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৮৬,২৫,০০০ লাখ টাকা!

13397097_s

চলুন এবার জেনে নেয়া যাক কোন কোন কাজ সমূহ সেরা দশে যায়গা করে নিয়েছেঃ

১) “R”

এটা হচ্ছে একটি প্রোগ্রামিং ভাষা! এটি পরিসংখ্যান বিষয়ে বিশ্লেষণ করতে প্রয়োজন।

এই পেশা থেকে অভিজ্ঞরা গড়ে আয় করেন প্রায় ৯,৬২৭ ডলার! যা মাসে বাংলাদেশি টাকায় ৭,২২,০৬৮ টাকা।

২) NoSQL

এটি হচ্ছে ডাটা সংগ্রহ এবং ডাটাব্যাজ প্রযুক্তি ব্যবস্থা।

NoSQL এ অভিজ্ঞরা গড়ে এই পেশা থেকে আয় করেন প্রায় ৯,৫৬৬ ডলার। যা মাসের হিসেবে বাংলাদশি টাকায় ৭,১৭,৪৭৫ টাকা।

৩) MapReduce

এটাও একটি প্রোগ্রামিং ভাষা যা বিশাল আয়তনের ডাটা নিয়ে কাজ করে!

এই পেশায় অভিজ্ঞরা এখান থেকে গড়ে আয় করেন প্রায় ৯,৫৩৩ ডলার! যা মাসিক হিসেবে বাংলাদেশি টাকায় ৭,১৪,৯৭৫ টাকা।

৪) PMBok

এটি হচ্ছে একটি প্রোজেক্ট ব্যবস্থাপনার জন্য বিশেষ গাইড।

PMBok বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা গড় আয় করেন ডলার! যা বাংলাদেশি টাকায় মাসে ৭,০২,৩৮৭ টাকা।

৫) Cassandra

এটি হচ্ছে একটি ওপেন সোর্স ডাটা ব্যবস্থাপনা!

এখানে যারা কাজ করেন তারা গড় আয় করেন ৯,৩৬৫ ডলার! যা বাংলাদেশি টাকায় মাসে ৭,০২,৩৮৭ টাকা।

৬) Omnigraffle

এটি হচ্ছে একটি diagrams, charts, illustrations, এবং গ্রাফিক্স বিষয়ক অ্যাপ্লিকেশান!

এই বিষয়ে অভিজ্ঞরা গড়ে আয় করেন ৯,২৫৩ ডলার! যা বাংলাদেশি টাকায় মাসে ৬,৯৩,৯৯৩ টাকা।

৭) Pig

এটি হচ্ছে একটি ডাটা বিশ্লেষণ যন্ত্র।

Pig এ যারা দক্ষ তারা গড়ে আয় করেন ৯,১৩০ ডলার! যা বাংলাদেশি টাকায় ৬,৮৪৭,৫৬ টাকা মাসে।

৮) Service Oriented Architecture

এটা হচ্ছে হচ্ছে একটি সফটওয়্যার যা দিয়ে কম্পিউটার সমূহের মাঝে একটি নেটওয়ার্ক গড়ে তুলা সম্ভব!

এই বিষয়ে যাদের ভালো দক্ষতা আছে তারা গড়ে ৯,০৮৩ ডলার আয় করে থাকেন! যা বাংলাদেশি টাকায় মাসের হিসেবে হয় ৬,৮১,২৩১ টাকা।

৯) Hadoop

এটি হচ্ছে একটি ওপেন সোর্স ডাটা ব্যবস্থাপনা এবং সফটওয়্যার স্টোরেজ!

এই বিষয়ে অভিজ্ঞরা গড়ে আয় করেন ৯,০৫৫ ডলার! যা মাসে ৬,৭৯,১৮১ টাকার সমান! 679181.25

১০) Mongo DB

এটি একটি ওপেন সোর্স ডোকোমেন্ট ডাটাব্যাজ।

এই বিষয়ে যারা দক্ষ তাদের আয় গড়ে ৮,৯৮৫ ডলার! যা মাসে বাংলাদেশি টাকায় ৬,৭৩,৯০৬ টাকা।

এই হচ্ছে বিশ্বে বর্তমানে সবচেয়ে বেশি আয় করা যায় এমন টেকনোলোজি বিষয়ক কাজ। অতএব আপনাকে এখনই সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনি এসব কাজ শিক্ষার বিষয়ে বিনিয়োগ করবেন কিনা। কারণ এসব কাজের রয়েছে প্রচুর চাহিদা এবং দারুণ অর্থনৈতিক হাত ছানি!

সূত্রঃ বিজনেসইনসাইডার

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...