পৃথিবীতে টানা ৮ দিন সূর্য উঠবে না: সত্যি নাকি গুজব?

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ গত কয়েকদিন ধরে একটি খবর ভাইরাল হয়ে দেখা দিয়েছে। আর সেটি হলো পৃথিবীতে নাকি টানা ৮দিন সূর্য উঠবে না। ঘটনাটি আসলে সত্যি নাকি গুজব?

consecutive 8 days, sun did not rise in world

আগামী জুনে নাকি টানা ৮ দিন আকাশে সূর্য উঠবে না। এই ৮ দিন নাকি অন্ধকারে ডুবে থাকবে পুরো পৃথিবী!

এমন এক খবরে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। অনেকেই এই খবরটিকে নিতান্তই গুজব বলে উড়িয়ে দিচ্ছেন। আবার কেও কেও দাবি করছেন খবরটি গুজব নয়, সত্যি।

কিন্তু এমন একটি খবরট কোথা থেকে এলো? এই খবরের সত্যতা কতটুকু? তবে এখন পর্যন্ত এর কোনো সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি। যদিও বলা হচ্ছে, এমন খবর নাকি ‘নাসা’ প্রেস বিজ্ঞপ্তি আকারে দিয়েছে। আর সেই খবর নাকি প্রকাশ করেছে ‘বিবিসি’, ‘রয়টার্স’ এবং ‘সিএনএন’। তবে ‘নাসা’র উল্লেখিত সংবাদ মাধ্যমগুলোর ওয়েভ সাইডে এ খবরের কোন সত্যতা এখন পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়।

প্রশ্ন দেখা দিয়েছে যে, তাহলে কারা এমন একটি খবরটি ছড়িয়ে দিচ্ছেন? এর নেপথ্যে কি কোনো কারণ রয়েছে? এর আগেও একবার বলা হয়েছিলো গত বছরের নভেম্বর হতে টানা ১৫ দিন পৃথিবীতে কোনো সূর্য উঠবে না। তখন সেই খবর ছড়িয়েছিল NEWSWATCH33.COM নামের একটি ওয়েব সাইট। তবে বর্তমানে ওই সাইটটির কোনো অস্তিত্ব পাওয়ার যাচ্ছে না।

সম্প্রতি আবার এমনই একটি খবর ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে। এ নিয়ে গত ক’দিন ধরে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে।

এবারের এই খবরটিতে বলা হয়, ‘আগামী ১০ জুন হতে ১৭ জুন পর্যন্ত আকাশে সূর্য উঠবে না। অর্থাৎ গোটা দুনিয়া থাকবে সম্পূর্ণ অন্ধকারাচ্ছন্ন। এমন একটি খবর নাকি নিশ্চিত করেছে নাসা !

সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ার মেনলো পার্কে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড সাইন্টিস্ট প্রেস কনফারেন্সে আনুষ্ঠানিকভাবে নাসা এই ঘোষণাটি দিয়েছে বলে খবরে উল্লেখ করা হয়।

নাসার এই খবরটি বিবিসি, রয়টার্স এবং সিএনএন নিউজে প্রকাশিত হবার সঙ্গে সঙ্গেই সারাবিশ্বে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে । ১০ লক্ষ বছরের মধ্যে এই প্রথমবার এমন বিরল ঘটনা ঘটতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে নাসা। নাসা বলেছে, ২০১৬ সালের ১০ জুন হতে ১৭ জুন পর্যন্ত টানা এই ৮ দিন পৃথিবী সম্পূর্ণ অন্ধকারে ঢেকে থাকবে। অর্থাৎ ১০ জুন হতে সূর্য উঠবেনা টানা ৮ দিন!

এ বিষয়ে নাসার একটি বিশেষ গবেষণা শেষে হোয়াইট হাউজে প্রেস রিলিজ পাঠিয়ে আরও উল্লেখ করে বলা হয় যে, ১০ জুন হতে সেই অন্ধকারে নিমজ্জিত ৮টি দিনে কেমন হবে দুনিয়ার হাল !

ওই প্রেস রিলিজে বলা হয়, প্রথম ২/৩ রাতের পর অন্ধকার মানুষের কাছে অনেকটা বিরক্তিকর হয়ে দাঁড়াবে। এরপর শুরু হবে নানারকম ব্যধির প্রকোপ। সারাবিশ্বে বিদ্যুতের সঙ্কট দেখা দিবে। বিভিন্ন রকমের লাইট বিক্রি বেড়ে যাবে। ৪র্থ দিন হতে পঞ্চম দিনের মধ্যে বাড়বে আত্মহত্যার ঘটনা। বলা হয়েছে, একটানা রাত দেখতে দেখতে মানুষ বিরক্ত হয়ে একসময় আত্মহত্যা করা শুরু করে দেবে।

এই খবরটি কেনো এতোদিন চেপে রাখা হয়েছিলো, তা জানতে চেয়ে নাসার মুখপাত্র চার্লস ফ্রাঙ্ক বোল্ডেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি তিনি।

এ খবরটির সত্যতা জানার জন্য ‘নাসা’র ওয়েভ সাইডে গিয়েও কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। আবার ‘বিবিসি’, ‘রয়টার্স’ এবং ‘সিএনএন’-এও এমন খবরের কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। সে কারণে প্রশ্ন উঠেছে, এমন খবর কে বা কারা রটাচ্ছে? কিংবা কী কারণে এই গুজব রটাচ্ছে বা তাদের উদ্দেশ্যই বা কী?

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...