স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ: সব কষ্টকে ম্লান করেছে!

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ঈদ মানেই বাড়ি যাওয়া এবং স্বজনদের সঙ্গে আনন্দ উপভোগ করা। চান্দুরা হতে টাঙ্গাইল পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার গাড়ির লাইন। তবে স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ, সব কষ্টকে ম্লান করেছে!


janjot-02

ঈদ এলেই শুরু হয় রাস্তার জানজট। বিশেষ করে উত্তরাঞ্চলের জনপদের দিকের রাস্তা ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে বিশাল জ্যামের সৃষ্টি হয়। তবে এবার আগে থেকেই শুরু হয়েছে এইজট।

আরিচা-দৌলতদিয়া ও আরিচা-পাটুরিয়া রুটে ফেরিঘাট সমস্যার কারণে টাঙ্গাইল সড়কে দীর্ঘ গাড়ির লাইন তৈরি হয়েছে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকায় ঈদ করতে বাড়ি যাওয়ার পথে মানুষকে দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে। বিশেষ করে মহিলা ও শিশুদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

১১ তারিখ হতে সরকারি ছুটি হলেও আজ বৃহস্পতিবার হওয়ায় মূলত ঈদের ছুটি শুরু হয়েছে আজ থেকেই। এই ছুটি চলবে ১৪ সেপ্টেম্বর বুধবার পর্যন্ত। তবে ধারণা করা হচ্ছে এর পরের দিন ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবারও অনেকেই ফিরবেন না। অর্থাৎ রাজধানী ঢাকা সচল হবে আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর রবিবার।

আজ সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল, সায়দাবাদ, মহাখালি, গাবতলিসহ সব কটি টার্মিনালে ভিড় ছিলো চোখে ধরার মতো। আগে থেকেই অনেকেই টিকিট কেটে রেখেছিলেন। তাই বাস টার্মিনালগুলোতে ভিড় ছিলো। চরম দুর্ভোগের শিকার হলেও যেনো মানুষের মধ্যে তার কোনো বিরক্তি প্রকাশ করতে দেখা যায়নি। কারণ বছরান্তে এই পর্বটিতে সবাই নিজ গ্রামের বাড়িতে আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে আনন্দে কাটাতে চান। তাই শত কষ্টও যেনো তাদের কাছে আনন্দের মনে হয়। আর সেই আনন্দ উপভোগের জন্য এই কষ্ট তাদের কাছে খুব ছোট একটি বিষয়। যুগ যুগ ধরে বাঙালিদের মধ্যে এই মনোভাব অব্যাহত রয়েছে। ঈদ সকলের জন্যই বয়ে আনুক আনন্দ সেই কামনা রইলো।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...