রোহিঙ্গা নারীদের যৌন নির্যাতন: জাতিসংঘের কালো তালিকায় মিয়ানমার সেনাবাহিনী

দেশটিতে রোহিঙ্গা মুসলিম নারীদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর এমন পদক্ষেপ নিলো জাতিসংঘ

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ রোহিঙ্গা মুসরিম নারীদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগে জাতিসংঘের কালো তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করলো মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে কালো তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে জাতিসংঘ। দেশটিতে রোহিঙ্গা মুসলিম নারীদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর এমন পদক্ষেপ নিলো জাতিসংঘ। জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস আন্তর্জাতিক চিকিৎসকদের উদ্ধৃতি দিয়ে গত শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদে এই সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদনও পেশ করেছেন।

প্রতিবেদনে তিনি উল্লেখ করেছেন, মিয়ানমারের সেনা সদস্যদের হাতে বেশিরভাগ রোহিঙ্গা মুসলমান নারী এবং কিশোরী যৌন নির্যাতনের শিকার হওয়ায় তারা মানসিকভাবে পর্যুদস্তু হয়ে পড়েছেন। এখন তারা অবর্ণনীয় দুঃখ-কষ্টের মধ্যে জীবন-যাপন করতে বাধ্য হচ্ছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব ওই প্রতিবেদনে আরও বলেছেন যে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের মধ্যে হুমকি, অবমাননা এবং আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্য সেনা সদস্যরা ইচ্ছা করেই নারীদের ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছে, যাতে করে তারা মিয়ানমার ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হয়। যাতে তারা আর ফিরে আসার চিন্তাও করতে না পারে।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোর বিভিন্ন প্রতিবেদনে মিয়ানমারের সেনা সদস্যদের হাতে রোহিঙ্গা মুসলমান নারীদের যৌন নির্যাতনের খবর উঠে আসে। এমনকি কন্যা শিশুরাও ওই নির্যাতনের হাত হতে রেহাই পায়নি বলে ওইসব প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। মানবাধিকার সংস্থাগুলো একে মানবতার বিরুদ্ধে জঘন্যতম অপরাধ হিসেবে অভিহিত করেছে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের কৌঁসুলী এ্যাড: ফাতোউ বোম বেনসৌদা বলেছেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নির্মম গণহত্যা ছোট কোনো বিষয় নয়। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের উচিত এই বিষয়ে দ্রুত বিচারিক তদন্ত শুরু করে দেওয়া।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...