ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদ চেরামন জুমা মসজিদ

ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদ - চেরামন জুমা মসজিদটি। এটি শুধু ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদই না, আরব বিশ্বের বাইরে নির্মিত পৃথিবীর প্রাচীনতম মসজিদগুলোর মধ্যে একটি

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ শুভ সকাল। শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ খৃস্টাব্দ, ১৪ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১০ শাবান ১৪৩৯ হিজরি। দি ঢাকা টাইমস্ -এর পক্ষ থেকে সকলকে শুভ সকাল। আজ যাদের জন্মদিন তাদের সকলকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শুভ জন্মদিন।

যে ছবিটি আপনারা দেখছেন সেটি ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদ চেরামন জুমা মসজিদ। এই মসজিদটি রাসূলের (সা:) জীবদ্দশায় নির্মিত হয়েছে।

এক তথ্যে জানা যায়, মুসলমানরা ভারতবর্ষ জয় করে প্রথমে অষ্টম শতকে মুহাম্মদ বিন কাসিমের নেতৃত্বে ও পরবর্তীতে ১০ম শতকে সুলতান মাহমুদের নেতৃত্বে। তবে তারও অনেক পূর্বে, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর জীবদ্দশাতেই, সপ্তম শতকের প্রথম ভাগে ভারতের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলে অনেকটা নীরবে-নিভৃতে ইসলাম প্রবেশ করে আরব ব্যবসায়ীদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে।

সেইসময় সেখানেই নির্মিত হয় ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদ হলো এই চেরামন জুমা মসজিদটি। এটি শুধু ভারতবর্ষের প্রথম মসজিদই না, আরব বিশ্বের বাইরে নির্মিত পৃথিবীর প্রাচীনতম মসজিদগুলোর মধ্যে একটি।

কথিত আছে যে, ভারতের দক্ষিণ ও পশ্চিমে, আরব সাগরের উপকূলে, বর্তমান কেরালা রাজ্যে এক হিন্দু রাজা বসবাস করতেন, যার নাম ছিল চেরামন পেরুমল। কথিত রয়েছে, একদিন তিনি স্বপ্নে দেখেন যে, আকাশের চাঁদ নাকি দ্বিখন্ডিত হয়ে গেছে। দুশ্চিন্তাগ্রস্ত রাজা তার সভার বিজ্ঞজনদের কাছ থেকে স্বপ্নের অর্থ জানতে চাইলেও, কেও কোনো সদুত্তর দিতে পারলেন না। রাজার মনে অস্বস্তি থেকে গেলো।

সেই সময় ভারতের সঙ্গে আরবের বাণিজ্যিক একটি সুসম্পর্ক ছিল। আরব দেশীয় বণিকরা সমুদ্রপথে ভারতে এসে বাণিজ্য করতেন। রাজার স্বপ্নের কিছুদিন পরেই একদল আরব মুসলমান বণিক, রাজা চেরামনের সমুদ্র বন্দরে এসে পৌঁছালেন। তখন দিকে দিকে ইসলামের জয়জয়কার চলছিল। এই বণিকদের কাছ থেকে রাজ্যে এই নতুন ধর্ম ইসলাম ও এর নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর প্রশংসা ছড়িয়ে পড়তে থাকে সব খানেই। এক সময় মহানবী (সা:) এর আঙুলের ইশারায় চাঁদকে দ্বিখন্ডিত করার কাহিনীও রাজার কানে আসে।

তখন রাজা বণিকদেরকে ডেকে তাদের কথা শোনেন ও বুঝতে পারেন যে, তার স্বপ্নে মূলত তিনি এই ঘটনাটিরই ইঙ্গিত পেয়েছিলেন। তিনি তখন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন ও বণিকদলের সঙ্গে মক্কার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। কথিত রয়েছে, সেখানে তিনি হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর সঙ্গেও নাকি সাক্ষাৎ করেন। তখন তিনি ‘তাজউদ্দিন’ নাম গ্রহণ করেন। মক্কা হতে ভারতে ফেরার পূর্বেই যাত্রাপথে ওমানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পূর্বে তিনি তার আরব সঙ্গীদেরকে ভারতে গিয়ে ইসলাম প্রচারের জন্য অনুরোধ করেন ও তাদের হাতে তার রাজ্যের সভাসদদের উদ্দেশ্যে লেখা একটি চিঠিও তুলে দেন। সেই চিঠিতে তিনি নিজ রাজ্যে একটি মসজিদ স্থাপনের ইচ্ছের কথা ব্যক্ত করেছিলেন।

বণিকদল রাজার চিঠি নিয়ে আবারও কেরালায় আসেন। রাজার নির্দেশ অনুযায়ী বণিকরা ৬২৯ সালে ভারতের বুকে সর্বপ্রথম মসজিদ নির্মাণ করেন। রাজা চেরামনের নাম অনুসারে মসজিদের নামকরণ করা হয় চেরামন জুমা মসজিদ। স্থানীয় স্থাপত্য অনুযায়ী তৈরি এই মসজিদটি দেখতে অনেকটা হিন্দুদের মন্দিরের মতো। ধারণা করা হয় যে, এটি বিশ্বের প্রথম মসজিদগুলোর একটি, যেখানে জুমার নামাজের আয়োজন করা হয়েছিলো।

ছবি ও তথ্য: https://roar.media এর সৌজন্যে।

Advertisements
আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন
Loading...