এমন রসাত্মক এবং শিক্ষণীয় গল্পটি না পড়লে পস্তাবেন!

গল্প শুধু রসাত্মক হলেই হবে না তার মধ্যে শিক্ষাও থাকতে হবে

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ আমরা অনেকেই গল্প পড়তে পছন্দ করি। কিন্তু সেই গল্পটি যদি হয় শিক্ষনীয় এবং রসাত্মক তাহলে মজাটা একটু বেশিই হয়। তাহলে চলুন পড়া যাক একটি ফ্রান্সের গল্প।

ফ্রান্সের এক নামকরা ব্যাংকে, ব্যাংক ডাকাতির সময় ডাকাত দলের সর্দার বন্দুক হাতে নিয়ে সবার উদ্দেশ্যে বললো, “কেউ কোন নড়াচড়া করবেন না, টাকা গেলে যাবে সরকারের কিন্তু জীবন গেলে যাবে আপনার। তাই ভাবনা চিন্তা করে আপনার পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করুন।”
এই কথা শোনার পর, সবাই নিজেকে বাঁচাতে শান্ত হয়ে চুপচাপ মাথা নিচু করে শুয়ে পড়ল।
এই ব্যাপারটাকে বলে
“Mind Changing Concept”
অর্থাৎ মানুষের ব্রেইনকে আপনার সুবিধা অনুযায়ী অন্যদিকে কনভার্ট করে ফেলা।

সবাই যখন শুয়ে পড়েছিল, তখন এক সুন্দরী মহিলা অফিসারের অসাবধানতাবশত তার কাপড় পাঁ থেকে কিছুটা উপরে উঠে গিয়েছিল। ডাকাত দলের সর্দার তার দিকে তাকিয়ে চিৎকার করে বলে উঠল, “আপনার কাপড় ঠিক করুন! আমরা ব্যাংক ডাকাতি করতে এসেছি, রেপ করতে না।”
এই ব্যাপারটাকে বলে
“Being Professional”
অর্থাৎ আপনি যেটা করতে এসেছেন, ঐটাই করবেন। যতই প্রলোভন থাকুক অন্যদিকে মনোযোগ দেওয়া যাবে না।

যখন ডাকাতরা ডাকাতি করে তাদের আস্তানায় ফিরে এলো…..তখন এক ছোট ডাকাত(MBA পাশ করা) ডাকাত দলের সর্দার(যে Class 5 পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে) -কে বললো, “বস চলেন টাকাটা গুনে ফেলি।”
ডাকাত দলের সর্দার মুচকি হেসে বললো, টাকা গুনার কোনো প্রয়োজন নেই। একটু পরে টিভি ছাড়লেই নিউজ চ্যানেলগুলোই বলে দিবে আমরা কত টাকা নিয়ে এসেছি।
এই ব্যাপারটাকে বলে
“Experience”
অর্থাৎ অভিজ্ঞতা যে গতানুগতিক সার্টিফিকেট এর বাইরে যেয়েও কাজ করতে পারে, ইহা তার উৎকৃষ্ট প্রমাণ।
ডাকাতরা চলে যাওয়ার সাথে সাথেই, ব্যাংকের কর্মচারি…ব্যাংক ম্যানেজারের কাছে ছুটে এসে বললো, স্যার তাড়াতাড়ি চলেন পুলিশকে ফোন দেই….এখন ফোন দিলে ওরা বেশিদূর যেতে পারবে না।
ব্যাংক ম্যানেজার কর্মচারিকে থামিয়ে দিয়ে বললো, ওদেরকে আমাদের প্রয়োজনেই এই ২০ মিলিয়ন টাকা নিয়ে যেতে দেওয়া উচিত, তাহলে আমরা যে ৭০ মিলিয়ন টাকার গরমিল করেছি, তা এই ডাকাতির ভিতর দিয়েই চালিয়ে দেওয়া যাবে।
এই ব্যাপারটাকে বলে,
“Swim with the tide”
অর্থাৎ নিজের বিপদকেও বুদ্ধি দিয়ে নিজের সুবিধা হিসেবে ব্যবহার করা।
কিছু সময় পরেই টিভিতে রিপোর্ট আসলো, ব্যাংক ডাকাতিতে ১০০ মিলিয়ন টাকার ডাকাতি। ডাকাতরা সেই রিপোর্ট দেখে বারবার টাকা গুনেও ২০ মিলিয়ন এর বেশি বাড়াইতে পারল না। ডাকাত দলের সর্দার রাগে ক্রুদ্ধ হয়ে বললো,”শালা আমরা আমাদের জীবনের ঝুকি নিয়ে, এত কিছু ম্যানেজ করে মাত্র ২০ মিলিয়ন টাকা নিলাম। আর ব্যাংক ম্যানেজার শুধুমাত্র এক কলমের খোঁচাতেই ৮০ মিলিয়ন টাকা সরিয়ে দিল। শালা চোর ডাকাত না হয়ে পড়াশোনা করলেই ত বেশি লাভ হইত।”
এই ব্যাপারটাকে বলে
“Knowledge is worth as much as gold!”
অর্থাৎ অসির চেয়ে মসী বড়।
ব্যাংক ম্যনেজার হাসছে, কেননা তার লাভ ৮০ মিলিয়ন। ৭০ মিলিয়ন টাকার গরমিল করেও সে আরো ১০ মিলিয়ন টাকা নিজের পকেটে ঢুকিয়ে ফেলেছে।
এই ব্যাপারটাকে বলে,
“Seizing the opportunity/Daring to take risks!”
অর্থাৎ সুযোগ থাকলে তাকে কাজে লাগানোই উচিত।
তাহলে এই ডাকাতিতে লাভ টা হইলো কার?
এই গল্পটার মধ্যে অনেক শিক্ষনীয় এবং বর্জনীয় বিষয় রয়েছে।

Advertisements
Loading...