The Dhaka Times
তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে রাখার প্রত্যয়ে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সামাজিক ম্যাগাজিন।

অনলাইনে ট্রাম্পপন্থীদের বক্তব্য নিয়ে রহস্য

Supporters of President Donald Trump attend a pro-Trump march Saturday Nov. 14, 2020, in Washington. (AP Photo/Jacquelyn Martin)

দি ঢাকা টাইমস্ ডেস্ক ॥ ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলে অধিবেশন চলাকালে নজিরবিহীন বিক্ষোভ-সহিংসতা ও দাঙ্গার ঘটনার সপ্তাহ দুয়েক না যেতেই আবারও আলোচনায় ট্রাম্পপন্থীরা। অনলাইনে ট্রাম্পপন্থীদের বক্তব্য নিয়ে রহস্য সৃষ্টি হয়েছে।

অনলাইনে ট্রাম্পপন্থীদের বক্তব্য নিয়ে রহস্য 1

ক্ষমতা হস্তান্তরের দিন সমস্ত আয়োজন বানচালের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন স্থানে ট্রাম্প সমর্থকরা সশস্ত্র অবস্থান নেওয়ার পরিকল্পনা করছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এমন এক পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীও প্রস্তুত রয়েছে।

তবে সর্বশেষ ঘটনা নিয়ে অনলাইনে ট্রাম্প সমর্থকদের কথোপকথনের বিষয়গুলো গণমাধ্যমেও উঠে এসেছে। ফেইসবুক-টুইটারে বাঁধার মুখে পড়ে ট্রাম্প সমর্থকরা বর্তমানে তুলনামূলক কম পরিচিত প্লাটফর্ম গ্যাবে সরব হয়েছেন।

ক্ষমতা হস্তান্তরের দিন দেশজুড়ে বিক্ষোভ করার প্রচারণা চালাতেই মূলত গ্যাবে পোস্ট করা হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে শুরু থেকেই ট্রাম্প সমর্থকরা সন্দিহান ছিলেন। এই প্রচারণাকে ‘কর্তৃপক্ষের ফাঁদ’ আশঙ্কা করে অনেকেই এই বিক্ষোভ আয়োজনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে অন্যদের নিরুৎসাহিতও করেছে। তবে বিভিন্ন রাজ্যে ট্রাম্প সমর্থকদের সশস্ত্র মহড়া দিতেও দেখা যায়।

এদিকে, ইতিপূর্বে ট্রাম্পের সমর্থনে উগ্র প্রচারণা করা খোদ ‘দ্য ডোনাল্ড’ ওয়েবসাইটের বার্তাতেই গ্যাবের প্ররোচণার বিষয়ে সতর্ক করা হয়। সাইটটির ভাষ্য হলো, “এটি (গ্যাবের রহস্যজনক প্রচারণা) একটি আয়োজন….. যার মাধ্যমে মূলত তারা আমাদের ধ্বংস করতে চায়।”

ট্রাম্প সমর্থকরা যদি এটি না করেও থাকে, তাহলেও এই রহস্যজনক প্রচারণাই বা কে চালালো? ট্রাম্প বিরোধীরা নাকি তৃতীয় পক্ষের কেও? এই প্রশ্নের উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শপথ নেবেন ২০ জানুয়ারি। দেশটিতে চলমান অস্থিরতায় উগ্র ডানপন্থী এবং বামপন্থী (অ্যান্টিফা) উভয় পক্ষই বেশ সক্রিয় রয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয়

# সব সময় ঘরে থাকি।
# জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বের হলে নিয়মগুলো মানি, মাস্ক ব্যবহার করি।
# তিন লেয়ারের সার্জিক্যাল মাস্ক ইচ্ছে করলে ধুয়েও ব্যবহার করতে পারি।
# বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পোশাক ধুয়ে ফেলি। কিংবা না ঝেড়ে ঝুলিয়ে রাখি অন্তত চার ঘণ্টা।
# বাইরে থেকে এসেই আগে ভালো করে (অন্তত ২০ সেকেণ্ড ধরে) হাত সাবান বা লিকুইড দিয়ে ধুয়ে ফেলি।
# প্লাস্টিকের তৈরি পিপিই বা চোখ মুখ, মাথা একবার ব্যবহারের পর

অবশ্যই ডিটারজেন্ট দিয়ে ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে ব্যবহার করা যেতে পারে।
# কাপড়ের তৈরি পিপিই বা বর্ণিত নিয়মে পরিষ্কার করে পরি।
# চুল সম্পূর্ণ ঢাকে এমন মাথার ক্যাপ ব্যবহার করি।
# হাঁচি কাশি যাদের রয়েছে সরকার হতে প্রচারিত সব নিয়ম মেনে চলি। এছাড়াও খাওয়ার জিনিস, তালা চাবি, সুইচ ধরা, মাউস, রিমোট কন্ট্রোল, মোবাই, ঘড়ি, কম্পিউটার ডেক্স, টিভি ইত্যাদি ধরা ও বাথরুম ব্যবহারের আগে ও পরে নির্দেশিত মতে হাত ধুয়ে নিন। যাদের হাত শুকনো থাকে তারা হাত ধোয়ার পর Moisture ব্যবহার করি। সাবান বা হ্যান্ড লিকুইড ব্যবহার করা যেতে পারে। কেনোনা শুকনো হাতের Crackle (ফাটা অংশ) এর ফাঁকে এই ভাইরাসটি থেকে যেতে পারে। অতি ক্ষারযুক্ত সাবান বা ডিটারজেন্ট ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
Loading...